আমরা কমবেশি সকলেই ইন্টারনেট ব্যবহার করে থাকি। আজ আমরা জানব মোবাইলে ইন্টারনেটের গতি বৃদ্ধির উপায় সম্পর্কে। এটা খুবই গুরত্বপূর্ণ। কেননা দেখা যায়। এই ইন্টারনেটের গতি কম থাকার জন্য আমরা নানা রকম সমস্যার মধ্যে পড়ি।

মোবাইলে ইন্টারনেটের গতি কম থাকার কারণে আমাদের মোবাইল থেকে ওয়েব ব্রাউজ করতে সমস্যা হয়। আমরা ঠিকঠাকভাবে ইন্টারনেট থেকে সকল তথ্য পাইনা।

এছাড়া ফেসবুক, ইউটিউবের মত প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করতে আমাদের সমস্যা হয়। আর আমরা যারা অনলাইনে কাজ করি বা ফ্রিল্যান্সিং করে টাকা আয় করি, তাদের জন্য স্লো ইন্টারনেট কাজে ব্যাঘাত সৃষ্টি করে।

নানা কারণে মোবাইলে এই ইন্টারনেটের গতি কম হতে পারে।আবার  অনেক মোবাইলে নেটওয়ার্ক সমস্যা জনিত কারণেও ইন্টারনেটের স্পীড কম থাকে।

আবার অনেক সময় অপারেটরের টাওয়ার থেকে সিগন্যাল পেতে সমস্যা হয়। এছাড়াও নানা কারণে মোবাইলের গতি বা স্পিড এর সমস্যা হয়ে থাকে। এই ব্লগে আমরা মোবাইলে ইন্টারনেটের স্পীড বৃদ্ধির উপায় গুলি জানব।

অবশ্যই পড়ুনঃ

মোবাইলে ইন্টারনেটের গতি কম থাকলে কি কি সমস্যা হতে পারে

আমাদের মোবাইলে ইন্টারনেটের স্পিড বা গতি কম থাকলে যে যে সমস্যা হতে পারে-

১. যারা অনলাইনে ক্লাস করেন। তাদের ক্লাস করার সময় অনেক সমস্যা হবে।

২. যারা ইউটিউবে ও ফেসবুকে ভিডিও দেখেন। তাদের ভিডিও সহজে লোড নিবেনা।

৩. ইন্টারনেট চালানোর সময় 4G এর পরিবর্তে H+ অথবা E উঠে।

৪. অনেকে অনলাইনে কাজ করার সময় কাজে ব্যাঘাত ঘটে। বিশেষ করে কোন গুরত্বপূর্ণ কাজের মাঝখানে ইন্টারনেটের গতি কমে গেলে খুবই সমস্যা হয়।

৫. যারা মোবাইল দিয়ে ভ্লগ ভিডিও বানান। তাদের ক্ষেত্রে ইন্টারনেটের গতি কম হলে ভিডিও আপলোড করতে অনেক সমস্যা হয়।

৬. যারা মোবাইলে ফ্রিল্যান্সিং করেন এবং ফেসবুকে ব্যবসা করেন তাদের ক্ষেত্রে কাজের অনেক ক্ষতি হয়।

৭. যারা নিয়মিত ইন্টারনেট ব্রাউজ করেন। যারা ইন্টারনেটে খেলা দেখেন। আর যারা সোস্যাল প্লাটফর্ম ব্যবহার করেন। তাদের জন্য কম গতির ইন্টারনেট অনেক সমস্যা করে।

তাই আমাদের সকলের মোবাইলে ইন্টারনেটের গতি বৃদ্ধির উপায় জানতে হবে। এখন দেখে নেই কিভাবে মোবাইলে ইন্টারনেটের স্পীড বৃদ্ধি করা যায়।

মোবাইলে ইন্টারনেটের গতি বৃদ্ধির উপায়

কয়েকটি উপায়ে ইন্টারনেটের গতি বৃদ্ধি করা যায়। এই উপায়গুলি জানা আমাদের জন্য খুবই প্রয়োজন। কেনান স্লো ইন্টারনেটে আমাদের কাজকর্ম বাঁধাপ্রাপ্ত হয়। মোবাইলে ইন্টারনেটের স্পীড বৃদ্ধির উপায় গুলি হল-

  • 4G সিম ব্যবহার করা
  • অপ্রয়োজনীয় অ্যাপ আন ইন্সটল করা
  • অনেক অ্যাপ একসাথে চালু না রাখা
  • হোম স্ক্রিনে অপ্রয়োজনীয় widget বন্ধ রাখা
  • মোবাইলের ডাটা অন ও অফ করা
  • ফোন Restart করা
  • ফোনের নেটওয়ার্ক Reset করা
  • ঘরের যে জায়গায় নেটওয়ার্কের সর্বোচ্চ গতি থাকে সেখানে মোবাইল ব্যবহার করা
  • গুগল ক্রোম ব্রাউজার আপডেট করা

এবার দেখে নিন বিস্তারিত-

১. 4G সিম ব্যবহার করা

মোবাইলে ইন্টারনেটের গতি বৃদ্ধির জন্য সবার আগে এটা নিশ্চিত করুন। আপনার ফোনটি 4G কিনা।

কারণ 3G মোবাইলে কখনোই ইন্টারনেটের গতি ভাল হবে না। আর আপনার সিমটিও অবশ্যই 4G হতে হবে।

4G ইন্টারনেটের গতি অনেক ভাল থাকে। এখন অনেক মোবাইল ও টেলিকম কোম্পানী 5G ব্যবহার করছে। তবে 5G এখনো ভালভাবে চালু হয়নি। তাই কমপক্ষে 4G ব্যবহার করুন।

২. অপ্রয়োজনীয় অ্যাপ আন ইন্সটল  করা

আপনার মোবাইলে যদি অনেক অপ্রয়োজনীয় অ্যাপ ইন্সটল করা থাকে। তবে তা আপনার মোবাইলের ইন্টারনেটের গতি কম হওয়ার জন্য দায়ী।

কারণ এই রকম অনেক অ্যাপ আছে। যা আপনি ব্যবহার করেননা। কিন্তু যখন আপনার ইন্টারনেট চালু থাকে। তখন সে অ্যাপগুলি ভেতর থেকে অন থাকে।

যার ফলে তারাও কিছু ডাটা ব্যবহার করতে থাকে। আর আপনার ইন্টারনেটের গতি তখন অনেক কম হয়ে যায়।

মোবাইলে ইন্টারনেটের গতি বৃদ্ধির উপায়

How to Make Data Faster on Your Phone?

৩. অনেক অ্যাপ একসাথে চালু না রাখা

আমরা যখন ইন্টারনেট ব্যবহার করি। তখন একসাথে অনেক অ্যাপ অন করি।

যেমন- আমরা একসাথে ফেসবুক, ইউটিউব, গুগল ক্রোম ইত্যাদি একের পর ব্যবহার করতেই থাকি।

আর সবগুলি অ্যাপ তখন মোবাইলের ব্যাকগ্রাউন্ডে অন হয়ে থাকে। এটা আপনার ইন্টারনেটের গতি কমিয়ে দেয়। তাই যেকোন অ্যাপ ব্যবহারের আগে অবশ্যই ব্যাকগ্রাউন্ড অ্যাপগুলি অফ করে নিতে হবে। এই উপায়ে আপনি আপনার মোবাইলে ইন্টারনেটের স্পীড বৃদ্ধি করে নিতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ

৪. হোম স্ক্রিনে অপ্রয়োজনীয় widget বন্ধ রেখে

মোবাইলের হোম স্ক্রিনে অপ্রয়োজনীয় widget বন্ধ রাখা একটি অন্যতম মোবাইলে ইন্টারনেটের গতি বৃদ্ধির উপায় ।

আমরা মোবাইলের হোম স্ক্রিনে আমরা অনেক সময় একসাথে ৪ বা ৫টি widget অন করে রাখি। বিশেষ করে weather widget এর মত কিছু widget সময় মোবাইলের ডাটা টানতেই থাকে। যার ফলে যখন আমরা অন্য কোন গুরত্বপূর্ণ কাজ ইন্টারনেটের মাধ্যমে করার চেষ্টা করি। তখন ইন্টারনেটের গতি কম পায়।

৫. মোবাইলের ডাটা অন ও অফ করে

অনেক সময় মোবাইলের ডাটা অফ করে, আবার অন করলে ইন্টারনেটের গতি বৃদ্ধি পায়। আপনিও এটা করে দেখতে পারেন।

৬. ফোন Restart করে

অনেক সময় ফোন মোবাইল Restart করে মোবাইলে ইন্টারনেটের গতি বৃদ্ধি করা যায়। এটি একটি অন্যতম মোবাইলে ইন্টারনেটের স্পীড বৃদ্ধির উপায় ।

৭. ফোনের নেটওয়ার্ক Reset করে

আপনার মোবাইলের নেটওয়ার্ক Reset করলে ইন্টারনেটের গতি বৃদ্ধি পেতে পারে। এর জন্য যা করতে হবে।

স্টেপঃ১ প্রথমে মোবাইলের setting এ ক্লিক করতে হবে।

স্টেপঃ২ এরপর General management এ ক্লিক করতে হবে।

স্টেপঃ৩ এরপর Reset এ ক্লিক করতে হবে।

স্টেপঃ৪ এরপর Reset Network settings থেকে Reset setting এ ক্লিক করতে হবে।

এতে আপনার mobile data, wifi, bluetooth Reset হয়ে যাবে। এই পদ্ধতি মোবাইলে ইন্টারনেটের গতি বৃদ্ধির উপায় এর ক্ষেত্রে অন্যতম।

৮. ঘরের যে জায়গায় নেটওয়ার্কের সর্বোচ্চ গতি থাকে সেখানে মোবাইল ব্যবহার করে

মোবাইলের ইন্টারনেট অনেক সময় ঘরে সব জায়গায় সমান গতি পায়না। কোথাও গতি বেশি পায়। আবার কোথাও গতি কম পায়। তাই আপনি ঘরের যে জায়গাতে গতি বেশি পাবে সেই জায়গাতেই ইন্টারনেট ব্যবহার করতে হবে। তবে সেক্ষেত্রে আপনি তখন ইন্টারনেটের গতি সর্বোচ্চ পাবেন।

ঘরের বিভিন্ন জায়গায় ইন্টারনেটের গতি চেক করার জন্য মোবাইলে একটি অ্যাপ ইন্সটল করতে হবে। অ্যাপটি হল Speedtest by Ookla। এই অ্যাপের মাধ্যমে আপনি আপনার ইন্টারনেটের আপলোড ও ডাউনলোড স্পিড চেক করতে পারবেন।

৯. গুগল ক্রোম ব্রাউজার আপডেট করে

মোবাইলে ইন্টারনেটের গতি সর্বোচ্চ পেতে। অবশ্যই আপনাকে গুগল ক্রোম ব্রাউজার ব্যবহার করতে হবে।

বিশেষ করে ব্রাউজিং করার ক্ষেত্রে। আর এই ব্রাউজার সব সময় আপডেট থাকতে হবে।

শেষকথা

আপনি উপরের পদ্ধতিগুলি চেষ্টা করে দেখতে পারেন। এগুলি সেরা মোবাইলে ইন্টারনেটের গতি বৃদ্ধির উপায়। মোবাইলে ইন্টারনেটের ভালো গতি খুবই প্রয়োজনীয়। কারণ ইন্টারনেটের গতি ভাল না হলে কোন কাজ করেই শান্তি পাওয়া যায়না।

অবশ্যই পড়ুনঃ

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন-