একটি ফোন দীর্ঘদিন ধরে ব্যবহার করতে থাকলে, ফোন হ্যাং করা ও গরম হওয়া সমস্যা শুরু হয়।

নিয়মিত এরকম হতে থাকলে আপনার মোবাইল ফোনের বড় ধরনের সমস্যা হয়ে যেতে পারে।

শুধু যে ফোন দীর্ঘদিন ধরে ব্যবহারের ফলেই এমনটি হয়। তা কিন্তু নয়।

আরো নানা কারণে এই সমস্যা হতে পারে।

চিন্তার কোন কারণ নেই। কিছু সেটিংস আছে। যা করলে আপনার ফোনের এই রকম সমস্যা আর হবেনা।

আবার কিছু কিছু বিষয় মেনে চললেও এই সমস্যা থেকে রেহাই পেতে পারেন

ফোন হ্যাং করা ও গরম হওয়া একে অপরের সাথে জড়িত।

আপনার ফোন যদি কোন কারণে অত্যধিক গরম হয়। তখন সেটা থেকে ফোন হ্যাং হতে পারে।

এখন দেখে নেই কি কি কারণে এমনটি হয়ে থাকে।

মোবাইল ফোন হ্যাং করা ও গরম হওয়া সমস্যার কারণ

একটি ফোনের প্রয়োজন অনুসারে পর্যাপ্ত র‍্যামের অভাব থাকলে।

ফোনের স্টোরেজ কম থাকলে।

এছাড়াও আরো নানা কারণে এমনটি হতে পারে।

তবে খুব সহজেই কিছু সেটিংস করলে ও কিছু নিয়ম মেনে মোবাইলের হ্যাং করা সমস্যা ও গরম হওয়া সমস্যা ঠিক করা সম্ভব। দেখে নেই কি কি কারণে সমস্যার সৃষ্টি হতে পারে-

১. মোবাইল ফোনটি পুরাতন হয়ে গেলেঃ

মোবাইলের বয়স ২ বছরের বেশি হলে এই সমস্যা বেশি হতে শুরু করে।

২. ফোনের স্টোরেজ ফুল হতে থাকলেঃ

আমরা প্রতিনিয়ত নানা ছবি তুলে, ভিডিও ডাউনলোড করে ফোনের স্টোরেজ ভরিয়ে ফেলি।

এছাড়া অনেকে অনেক অ্যাপ ব্যবহারের ফলে ফোনের ব্যাকগ্রাউন্ডে নানা ধরনের ফাইল জমা হয়ে স্টোরেজ ফুল করে ফেলে।

একটা ফোনের যখন ইন্টারনাল স্টোরেজ ফুল হয়ে যায়। অথবা প্রায় ফুল হয়ে যায়।

তখন সেটি হ্যাং করা ও গরম হওয়া সমস্যা দেখা দেয়।

৩. ফোনের র‍্যামের পর চাপ পড়লেঃ

ফোনে যখন র‍্যামের উপর চাপ পড়ে। তখন সমস্যা হতে পারে। যদি আপনার ফোনের র‍্যাম কম থাকে।

আর আপনি যদি তখন হাই হাই-এন্ড গেম খেলেন বা অ্যাপ ব্যবহার করেন। তখন র‍্যামের উপর চাপ পড়ে। এছাড়া একসাথে অনেক অ্যাপ চালু থাকলে। ফোনের র‍্যামে চাপ পড়ে ফোন গরম হয়ে হ্যাং হয়ে যেতে পারে।

৪. নেটওয়ার্কের সমস্যার কারণেঃ

অনেক সময় নেটওয়ার্কের সিগন্যাল না পেলে। ফোন তখন নেটওয়ার্ক সিগন্যাল পেতে তার প্রসেসরের সর্বোচ্চ ব্যবহার করে।

যার ফলে তখন ফোনে চাপ পড়ে। আর তখন ফোন ফোন হ্যাং করা ও গরম হওয়া সমস্যা শুরু হয়।

আরো পড়ুনঃ

৫. বিভিন্ন সার্ভিস অন রাখাঃ

অহেতুক Blutooth, Wifi, Location ইত্যাদি সার্ভিস অন রাখলে ফোন হ্যাং করতে পারে। এছাড়া এর কারণে ফোন গরম হতে পারে।

৬. তাপের কারণেঃ

সূর্যের আলো ও চুলার কাছে ফোন ব্যবহার করলে। ফোন তাড়াতাড়ি গরম হয়ে যায়। যার ফলে ফোন হ্যাং করে।

৭. চার্জে লাগিয়ে ফোন ব্যবহারঃ

ফোনের চার্জ খুবই কমে যাবার পরেও ফোন ব্যবহার করেই গেলে। আর ফোন চার্জে লাগিয়ে ব্যবহার করলে।

বিশেষ করে অনেকে ফোনে চার্জ লাগিয়ে গেম খেলেন। আবার অনেকে চার্জে লাগিয়ে গেম খেলেন। এতে করে এই সমস্যা দেখা দেয়।

এছাড়াও আরো নানা কারণে ফোন হ্যাং করা ও গরম হওয়া সমস্যা হয়ে থাকে। এটা থেকে বাঁচতে আমাদের ফোনে কিছু সেটিংস করতে হবে। আর কিছু বিষয় মেনে চলতে হবে। তাহলেই আমাদের ফোন আর হ্যাং করবে না ও গরম হবে না।

ফোন হ্যাং করা ও গরম হওয়া থেকে রক্ষা পেতে কিছু সেটিংস

ফোনের কিছু সেটিংস করে নিলে ফোন গরম হওয়া ও হ্যাং করা থেকে বিরত থাকবে। সেটিংসগুলি হল-

১. Developer অপশন থেকে কিছু সেটিংস

প্রথমে ফোনের Developer অপশন চালু করতে হবে। Developer অপশন চালু করার জন্য Settings থেকে About phone এ যেতে হবে।

এখান থেকে Software information এ ক্লিক করতে হবে।

এরপর থেকে Build number এ কয়েকবার প্রেস করতে হবে। এরপর setting থেকে Developer option খুঁজে পাওয়া যাবে।

এখান থেকে Window animation scale, Transition scale, Animation duration scale, off করে দিতে হবে।

ফোন হ্যাং করা ও গরম হওয়া

Background process limit সেট করতে হবে- At most 3 processes।

২. Google Play Store থেকে Auto update off করতে হবে

এর জন্য Google Play store এ যেতে হবে। এরপর settings থেকে Network preference এ যেতে হবে। এরপর এখান থেকে Auto-update apps এ যেয়ে Don’t auto-update সেট করতে হবে।

ফোন হ্যাং করা ও গরম হওয়া থেকে রক্ষা পেতে যা যা করতে হবে

আপনি নিচের এই নিয়মগুলি অনুসরণ করলে আপনার ফোন আর গরম হবে না ও হ্যাং করবে না। দেখে নিন সেই নিয়মগুলি-

১. ফোনের ইন্টারনাল স্টোরেজ ৫০% ফাঁকা রাখতে হবে। এর জন্য স্টোরেজ থেকে অপ্রয়োজনীয় ফাইল, ডাটা ডিলিট করে দিতে হবে।

২. ফোনের র‍্যামে বেশি চাপ দেওয়া যাবে না। তাই একসাথে অনেক অ্যাপ ওপেন রাখা যাবেনা। ফোন থেকে অপ্রয়োজনীয় অ্যাপ uninstall করতে হবে। কিছু অ্যাপ uninstall না হলে তা Disable করতে হবে।

৩. ফোনের র‍্যাম কম হলে এতে Pubg, Freefire এর মত হাই-এন্ড গেম খেলা যাবেনা।

৪. Facebook ও Messenger অ্যাপের Lite version ব্যবহার করতে হবে।

৫. সরাসরি সূর্যের আলোতে ও চুলার আগুনের সামনে ফোন রাখা যাবে না।

৬. যেসকল এলাকায় নেটওয়ার্কের সমস্যা করে। সেই এলাকাতে ১টি সিম চালু রাখতে হবে। আর এখানে ইন্টারনেট অপশন বন্ধ রাখতে হবে।

৭. নিয়মিত ফোনের অ্যাপ এর ডাটার cache clean করতে হবে। এর জন্য settings থেকে Apps এ যেয়ে সকল অ্যাপের cache clean করতে হবে।

৮. মোবাইলের Display এর Brightness সব সময় কম করে রাখতে হবে। আর এর screen timeout ১৫ সেকেন্ড করতে হবে।

৯. ফোন চার্জে লাগিয়ে ব্যবহার করা যাবে না। ফোনের চার্জ ২০% হওয়ার আগেই তা চার্জে লাগাতে হবে।

১০. ফোনের ব্যাককভার খুলে চার্জে দিতে হবে। গরমের দিনে ফোনে ব্যাক কভার ব্যবহার না করাই ভাল।

শেষকথা

পরিশেষে বলা যায়, একটি মোবাইল ফোন আমাদের জীবনে খুবই প্রয়োজনীয় একটা জিনিস। কিন্তু দিনের পর দিন ব্যবহার করার জন্য ফোন হ্যাং করা ও গরম হওয়া সমস্যার সৃষ্টি হয়।

মোবাইল ফোন ব্যবহারের কিছু অসতর্কতা ও অদক্ষতার কারণেও সমস্যার সৃষ্টি করে।

আর ফোন গরম হওয়ার জন্য দায়ী ফোনের র‍্যামে ও প্রসেসরের উপর অতিরিক্ত চাপ। তাই আমাদের চেষ্টা করতে হবে।

যাতে এই দুইটির উপর চাপ কম পড়ে। তাহলে ফোন হ্যাংও করবে না আবার গরমও হবেনা।

পোস্টটি শেয়ার করুন-