ফেসবুক থেকে রিলস বানিয়ে এখন অনায়েসেই ইনকাম করা যাচ্ছে। তবে এর জন্য ফেসবুক রিলস ভাইরাল করার উপায় জানতে হবে।

কেননা রিলস ভিডিও যদি ভাইরাল না হয়। সেক্ষেত্রে আয় করা কোন ভাবেই সম্ভব হবে না।

আজকাল এমন ছোট ভিডিও অনেক জনপ্রিয়।

মানুষ এখন রিলস ভিডিওতেই বেশি সময় ব্যয় করে থাকে।

আর এই ধরনের ভিডিও থেকে অনেকেই মাসে লাখ লাখ টাকা ইনকাম করছে।

রিলস একবার ভাইরাল হলেই ভিডিওতে অনেক ভিউ আসবে। আর যত বেশি ভিউ হবে তত বেশি টাকা ইনকাম করা যাবে।

আরো পড়ুনঃ

রিলস (Reels) কি?

ফেসবুক রিলস হল টিকটকের মত ছোট ছোট ভিডিও।

আমরা ফেসবুক চালাতে চালাতে প্রায়ই দেখি এই ভিডিও গুলি আমাদের চোখে পড়ে। আর আমরা তখন ঘন্টার পর ঘন্টা ধরে স্ক্রল করে এই ভিডিও গুলি দেখতে থাকি।

রিল ভিডিও গুলি ছোট ছোট হওয়ায় এগুলি দেখে আমরা অনেক বেশি মজা পাই।

কিন্তু আমরা এটা জানিনা যে, এই ভিডিওগুলি যারা বানায় তারা মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করছে। তাই ফেসবুক রিল ভিডিও ভাইরাল করার উপায় জানতে হবে।

আপনিও চাইলে এভাবে ফেসবুক রিলস ভিডিও বানিয়ে প্রতি মাসে প্রচুর টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

ফেসবুক রিলস ভাইরাল করার উপায় কেন জানতে হবে?

ফেসবুকে প্রতিদিন অনেক অনেক রিলস দিয়েও লাভ নেই। যদিনা সেটি ভাইরাল হয়।

তাই রিলস ভিডিও যেকোন উপায়েই reels ভাইরাল করার উপায় জানতে হবে। কারণ, এটি ভাইরাল হলে আপনাদের মনিটাইজেশন পাওয়া সহজ হবে।

আর ভাইরাল ভিডিও তে মিলিয়ন মিলিয়ন ভিউ হবে। আর প্রচুর টাকা আয় হবে। আর কিভাবে Facebook রিলস ভাইরাল করতে হয় তা এই ব্লগ থেকে আমরা জানতে পারব।

ফেসবুক রিলস ভাইরাল করার উপায়

রিলস ভাইরাল করার অনেক উপায় আছে। তবে এটি ভাইরাল করার সবথেকে কার্যকরি উপায়গুলি নিচে দেওয়া হল-

১. সঠিক সময়ে রিলস আপলোড করে

ফেসবুক রিলস এমন সময়ে আপলোড করতে হবে। যখন মানুষ ফেসবুকে সবথেকে বেশি অ্যাক্টিভ থাকে।

আর অ্যাক্টিভ সময়ে মানুষ সবথেকে বেশি রিলস দেখে। আর লাইক, কমেন্ট, শেয়ার করে। এই অ্যাক্টিভ সময়টি হল।

সন্ধ্যার পর থেকে পরবর্তী ৩ ঘন্টা। এই সময়ে রিলস আপলোড করলে রিলস ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার সুযোগ থাকে।

২. থাম্বনেইল এর ব্যবহার করে

রিলসের শুরুতে আপনি বড় করে টেক্সটে লিখে দিন। আপনি যা ভিডিওতে দেখাতে চাচ্ছেন তা টেক্সট আকারে বড় করে কিছু সময়ের জন্য রেখে দিন।

তখন ফেসবুক থেকে আপনার রিলস এর থাম্বনেইলে সেই লেখাটি দেখাবে। এভাবে থাম্বনেইল হলে সেই রিলস এ ক্লিক বেশি পড়ে। আর তখন সেটি ভাইরাল হবে।

ফেসবুক রিলস ভাইরাল করার উপায়

How to do viral Facebook reels?

৩. প্রতিদিন ভিডিও আপলোড করে

আপনি প্রতিদিন নিয়ম করে ১ বা ২ টা রিলস আপলোড করুন। কোন দিন মিস দিবেননা। দেখবেন একটা না একটা রিলস আপনার ভাইরাল হবে।

তবে খেয়াল রাখতে হবে ভিডিও এর কোয়ালিটি যেন অনেক ভাল হয়। নিয়মিত প্রতিদিন ভিডিও না দিলে রিলস ভাইরাল হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকবে।

৪. রিলস সেটিংস Public করে

ফেসবুক একাউন্ট এ সেটিংস থেকে Profile settings এ যান। সেখানে Privacy তে ক্লিক করুন। এখান থেকে Who can see your future reelsPublic সিলেক্ট করে দিন

৫. গুরুত্বপূর্ণ দুইটি সেটিংস অন করে

ফেসবুক একাউন্ট এ সেটিংস থেকে Profile settings এ যান। Privacy তে ক্লিক করতে হবে। এরপর এখান থেকে Do you want search … profile তে ক্লিক করুন। On করে দিন। আর Allow your profile….at similar profiles তে ক্লিক করুন। On করে দিন।

৬. ভাইরাল টপিক নিয়ে রিলস বানিয়ে

ভাইরাল মানুষ, ভাইরাল গান ইত্যাদি নিয়ে রিলস বানালে তা খুব তাড়াতাড়ি ভাইরাল হবে। কারণ ফেসবুক ভাইরাল টপিক খুব পছন্দ করে।

৭. হ্যাশ ট্যাগ ব্যবহার করে

রিলস এর টাইটেল লেখার সাথে এর সাথে একটি হ্যাশ ট্যাগ (#) ব্যবহার করতে হবে। তাহলে এর রিচ বাড়বে। আর এটি ভাইরাল হবে।

৮. ভিডিও এর সঠিক সাইজ দিয়ে

রিলস ভিডিওটি ৩০ সেকেন্ডের মধ্যে হলে ভাল হয়। ছোট ভিডিও ভাইরাল হতে সময় কম লাগে।

শেষকথা

পরিশেষে একটা কথাই বলা যায়। সঠিকভাবে ও সঠিক নিয়মে রিলস আপলোড করলে রিলস ভাইরাল হবেই। আর আমাদের ফেসবুক রিলস ভাইরাল করার উপায় গুলি জানতে হবে

এছাড়া ট্রেন্ডিং বিষয় নিয়ে রিলস ভিডিও বানানোর চেষ্টা করতে হবে। তাহলেই রিলস ভাইরাল হবে।

আর এই প্ল্যাটফর্ম থেকে তখন একটি ভাল ক্যারিয়ার করা সম্ভব হবে।

অবশ্যই পড়ুনঃ

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন-