যারা ফ্রিল্যান্সিং পেশায় আছেন, তারা অনেকেই মনে করেন ফাইবার মার্কেটপ্লেস সেরা। এর অনেক কারণ আছে।

আজকাল ফ্রিল্যান্সারেরা ফাইবারে অনেক বেশি কাজ করে থাকে।

কারণ এখানে অনেক বেশি কাজ পাওয়া যায়। আর আপনি অল্প কাজ শিখেও এখানে কাজ পেতে পারেন।

আবার এখানে কাজ পেতে এক্সট্রা কোন টাকা দিতে হয় না।

আর এটি খুবই জনপ্রিয় একটি মার্কেটপ্লেস। বাংলাদেশী যারা অনলাইনে টাকা আয় করেন, তাদের মধ্যে বেশিরভাগই এখানে কাজ করে থাকেন।

ফাইবারে কাজ করা অনেক সহজ। আর এখানে আপনাকে বায়ারকে খুজতে হয় না। বায়ারই আপনাকে খুঁজে নিবে। আর এখানে আপনি যে কাজ পারেন তার জন্য একটি গিগ তৈরি করতে হয়।

ফাইবার মার্কেটপ্লেস কি আসলেই সেরা?

পৃথিবীতে ফ্রিল্যান্সিং কাজ করা জন্য অনেক মার্কেটপ্লেস আছে। যেমনঃ Upwork, Freelancer.com, Fiverr, People Per Hour, Guru, 99 designs ইত্যাদি। এদের মধ্যে অনেকেই ধারণা করেন ফাইবার সেরা। কেননা বাংলাদেশের বেশিরভাগ ফ্রিল্যান্সারেরা এই প্ল্যাট ফর্মে কাজ করে। আবার অনেকে ফ্রিল্যান্সিং বলতে ফাইবারকেই বুঝে থাকেন।

ফাইবার ফ্রিল্যান্সিং ওয়েবসাইটের একটি নিজস্বতা আছে। এই মার্কেটপ্লেসটিকে বায়াররা অনেক বিশ্বস্থ মনে করে। আর এখানে অনেক অল্প মূল্যে বায়াররা তাদের কাজ করিয়ে নিতে পারেন।

অপরদিকে ফ্রিল্যান্সারেরাও এই মার্কেটপ্লেসে খুব তাড়াতাড়ি সফলতা অর্জন করতে পারেন। কারণ, এখানে আপনি ভাল কাজ পারলে, প্রচুর পরিমাণ কাজ পাওয়া যায়।

ফাইবারে যত ভ্যারাইটি ও স্কিলের কাজ পাওয়া যায়, তত কাজ অন্য্যান্য মার্কেটপ্লেসে এত বেশি পাওয়া যায়না। এই কারণে বায়াররা এই মার্কেটপ্লেসের ব্যাপারে এতটাই আগ্রহী। তাই বলা যায়, এই মার্কেটপ্লেসে আসলেই সেরা।

কেন ফাইবার মার্কেটপ্লেস সেরা?

আমরা বলতে পারি, পৃথিবীর যত ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস আছে, এদের মধ্যে ফাইবার একটি অন্যতম সেরা মার্কেটপ্লেস।

আমাদের দেশের অনেক বেকার তরুণ ও তরুণী এই মার্কেটপ্লেসে কাজ করে নিজেদের ক্যারিয়ার গড়ে নিয়েছে।

বাংলাদেশ ছাড়াও ভারত, পাকিস্তান, থাইল্যান্ড, ইন্দোনেশিয়া ইত্যাদি দেশের লোকজন এখানে কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করছেন। এখন দেখে নিন, কি কি কারণে ফাইবার মার্কেটপ্লেস সেরা-

  • ফাইবারে প্রচুর পরিমাণ ও বিভিন্ন ক্যাটাগরির কাজ পাওয়া যায়।
  • এখানে কাজে অ্যাপ্লাই করার ঝামেলা নেই। আপনি কাজের গিগ তৈরি করলে, বায়ার আপনাকে খুঁজে নিবে। 
  • ফাইবারে কাজে অ্যাপ্লাই করতে কোন প্রকার টাকা খরচ করতে হয় না।
  • এদের ওয়েবসাইট ইন্টারফেস অনেক ব্যবহারযোগ্য।
  • ফাইবারে একবার কাজ পেলে কাজের অভাব হয় না।
  • ফাইবার থেকে প্রচুর টাকা আয় করা যায়। আর আয়কৃত টাকা খুব সহজেই উত্তোলন করা যায়।

আরো পড়ুনঃ

কিভাবে ফাইবারে অ্যাকাউন্ট খুলতে হয়

১. ফাইবারে অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য আপনার একটি জিমেইল অথবা ফেসবুক অ্যাকাউন্টের দরকার হয়। আপনি খুব সহজে এখান থেকে অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন।

২. অ্যাকাউন্ট খোলার পর আপনার নাম, ডিস্প্লে নাম, ক্যাটাগরি, আপনার কাজের বর্ণনা দিতে হয়।

৩. এরপর আপনার একটি প্রোফাইল পিকচার দিতে হয়। আর আপনার ফোন নাম্বার ভেরিফাইড করতে হয়।

৪. এরপর আপনার প্রফাইলে আপনার সোশ্যাল লিংক দিয়ে, প্রফাইলটিকে ৮০% থেকে ১০০% কমপ্লিট করতে হয়।

 

ফাইবার মার্কেটপ্লেস

Fiverr marketplace is the best?

ফাইবারে কিভাবে গিগ খুলতে হয়

ফাইবারের গিগ বলতে বোঝায় যে আপনি যে ক্যাটাগরির কাজ পারেন।

তা প্রজেক্ট আকারে আপনার ফাইবার অ্যাকাউন্টে সেট করা। আপনার এই প্রজেক্টের সকল বর্ণনা ও আপনার কাজের রেট, এই গিগের মাধ্যমে দেওয়া
হয়। গিগ দেখে বায়ার তখন আপনার সার্ভিসটি কিনে বা আপনাকে কাজে নেয়।

দেখে নিন ফাইবারে গিগ খোলার উপায়-

১. ফাইবারে গিগ খোলার আগে আপনার প্রফাইলটি ৮০% কমপ্লিট করে নিলে ভাল হয়।

২. এবার আপনি যে ক্যাটাগরির কাজ পারেন সেই ক্যাটাগরির গিগ খুলতে হয়। ফাইবারের কয়েকটি জনপ্রিয় ক্যাটাগরি হল ডাটা এন্ট্রি, ওয়েব ডিজাইন, গ্রাফিক্স ডিজাইন, এস ই ও ইত্যাদি।

৩. গিগ খোলার আগে আপনাকে ভালভাবে কাজ শিখে নিতে হবে।

. এরপর আপনার গিগের টাইটেল, গিগের বর্ণনা, ট্যাগ, ক্যটাগরি, কীওয়ার্ড দিতে হবে।

৫. আপনি আপনার সার্ভিসের জন্য কত টাকা নিবেন ও আপনার গিগের জন্য প্রয়োজনীয় প্রশ্ন উত্তর সেট করে নিতে হবে।

৬. তারপর আপনার গিগের জন্য একটি দৃষ্টিনন্দন ছবি সেট করতে হবে। যেই ছবির সাইজ ১২৮০*৭৬৯ পিক্সেলের হলে ভাল হয়। এরপর আপনার পোর্টফোলিও আপনার গিগে যোগ করে গিগ পাবলিশ করতে হয়।

এরপর আপনার এই গিগটি ফাইবারে দেখা যাবে। কোন বায়ার যদি আপনাকে পছন্দ করেন, তাহলে সে আপনাকে কাজে নিবে।

আর আপনি তখন সেই বায়ারের কাজ করে ফাইবার মার্কেটপ্লেস থেকে টাকা আয় করতে পারবেন।

এভাবে প্রতিমাসে আপনার আয় বাড়তে থাকবে। এক সময় আপনার আয় মাসে লাখ টাকা ছাড়াবে।

ফাইবারে কোন কোন ক্যাটাগরির কাজ পাওয়া যায়?

ফাইবার একটি অন্যতম সেরা মার্কেটপ্লেস। এখানে প্রায় ৭০০ ক্যাটাগরির কাজ পাওয়া যায়। ফাইবারে পেমেন্ট প্রটেকশন অনেক ভালো। আপনাকে টাকা হারানো নিয়ে চিন্তা করতে হবেনা। আপনার কোন সমস্যা হলে ফাইবারে ২৪ ঘন্টা সাপোর্টের সুবিধা আছে।

ফাইবারে যেসকল অন্যতম কাজ করে আপনি আপনার ক্যারিয়ার গড়তে পারবেন-

  • গ্রাফিক্স ডিজাইন
  • ওয়েব ডিজাইন
  • ডাটা এন্ট্রি
  • ডিজিটাল মার্কেটিং
  • ভিডিও এডিটিং
  • ট্রান্সলেশন
  • এসইও
  • ওয়েব ডেভেলপমেন্ট
  • অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট ইত্যাদি।

আমাদের শেষ কথা,

আপনি নির্দ্বিধায় বলতে পারেন, ফাইবার মার্কেটপ্লেস একটি অন্যতম সেরা ফ্রল্যান্সিং কাজ করার জায়গা।

নানা স্বকীয় বৈশিষ্ট্যের জন্য এই মার্কেটপ্লেস জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। ফাইবারে কাজ পাওয়া অন্যান্য মার্কেটপ্লেসের তুলনায় কিছুটা সহজ। আর আপনি চোখ বন্ধ করে এখানে কাজ করতে পারেন।

কারণ এদের পেমেন্ট সিস্টেম অনেক নিরাপদ। ফাইবার থেকে বাংলাদেশের প্রচুর রেমিট্যান্স আসে। তাই আপনিও ঘরে বসে ফাইবারে কাজ করে নিজের ক্যারিয়ার গড়তে পারেন।

অবশ্যই পড়ুনঃ

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন-