আমরা সকলেই চাই, ঘরে বসে না থেকে কিছু করে ইনকাম করতে। চাইলেই আমরা প্রতিদিন ২০০ টাকা ইনকাম করতে পারি। এই টাকার পরিমাণ খুব বেশি না হলেও একেবারে কম না।

আমরা অনায়েসেই আমাদের হাত খরচের জন্য এই টাকা ব্যবহার করতে পারি। এছাড়া আমরা যারা ছাত্র আছি, তারা এই টাকা দিয়ে তাদের পড়াশুনার খরচ চালাতে পারেন।

অনলাইনে কাজ করে অনেকেই দিনে ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা ইনকা করছেন।

এটা আপনার পক্ষেও সম্ভব। আপনি যদি দিনে দুইশো বা তিনশো টাকা ইনকামের পথ খুঁজে পান তাহলে খুব সহজে আপনার ইনকামকে বাড়িয়ে নিতে পারবেন।

একটা সময় দেখা যাবে আপনি দিনে ১০০০ টাকা ইনকাম পর্যন্ত ইনকাম করতে পারছেন।

প্রতিদিন ২০০ টাকা ইনকাম করতে কি কি প্রয়োজন

খুব সহজে দিনে এই পরিমাণ টাকা ইনকাম করার জন্য প্রয়োজন, শুধুমাত্র একটি স্মার্টফোন। আর কিছু ইন্টারনেট, যা দিয়ে ব্রাউজ করা করা যায়। এছাড়া আপনার Computer বা Laptop থাকলে আরো সহজেই ইনকাম করা সম্ভব।

আপনি এর সাহায্যে ঘরে বসে সামান্য কিছু সময় দিয়ে ইনকাম করতে পারবেন।

মাত্র ২ থেকে ৩ ঘন্টা সময় দিয়েই আপনি ইনকাম করতে পারবেন। আর আপনার ইনকাম করার টেকনিক জানতে হবে।

আপনি একবার ইনকামের রাস্তা পেয়ে গেলে মাসে ৩০ হাজার টাকা আয় করাও আপনার কাছে ব্যাপার হবেনা।

প্রতিদিন ২০০ টাকা ইনকাম

How to earn 200 daily working online?

 

প্রতিদিন ২০০ টাকা ইনকাম করার উপায়

আপনি যদি মনে করেন, আপনি ঘরে বসে ইনকাম করতে চান।

তাহলে অনলাইনে খুব সহজেই ইনকাম করতে পারবেন।

আর প্রতিদিন এই টাকা ইনকাম করা আহামরী কোন কঠিন কাজ না।

অনলাইনে অনেক পন্থা আছে, যার সাহায্যে অনায়েসেই আপনি দিনে এই পরিমাণ টাকা আয় করতে পারবেন।

দেখুন উপায়গুলিঃ

১. অনলাইন সার্ভে করে

২. Captcha Entry করে

৩. ফ্রিল্যান্সিং (Freelancing) করে

৪. Typing করে

৫. Content Writing করে

৬. সোস্যাল মিডিয়া ম্যানেজার (Social Media Manager) এর কাজ করে

৭. Data entry করে

৮. ছবি বিক্রি করে

৯. Youtube Video তৈরি করে

১০. Daraz অ্যাপের মাধ্যমে

১) অনলাইন সার্ভে করে

আপনি খুব সহজেই অনায়েসেই শুধুমাত্র মোবাইলে দিয়ে সার্ভে করে ইনকাম করতে পারবেন।

এই রকম অনেক সার্ভে অ্যাপ আছে, যেখান থেকে খুব সহজেই আয় করা যায়।

শুধুমাত্র মোবাইল আর ইন্টারনেট থাকলেই আপনি এভাবে আয় করতে পারবেন। সার্ভে অ্যাপগুলি সাধারণত ভাল পরিমাণ টাকা প্রদান করে থাকে। আর আপনি সহজেই সেই আয়কৃত টাকা Paypal বা Gift cards এর মাধ্যমে পাবেন। কয়েকটি সার্ভে অ্যাপ হলঃ Swagbucks, ySense ইত্যাদি। 

আপনি সার্ভে করে প্রতিদিন অনায়েসেই ২০০-৩০০ টাকা আয় করতে পারবেন।

২) ক্যাপচা (Captcha) এন্ট্রি করে

 

ক্যাপচা পূরণ করে ইনকাম করাটা অনেক সহজ।

ক্যাপচা এন্ট্রি করে আপনি সহজেই টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

শুধু তাই নয় আপনি কিছুটা অতিরিক্ত সময় দিয়ে এখানে মাসে ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন। ক্যাপচা মানে হল হিউম্যান ভেরিফিকেশন কোড।

এখানে আপনাকে কিছু 1,2,3,4,a,d ইত্যাদি নাম্বার ও সংখ্যা দেওয়া হবে। আপনাকে শুধু দেখে দেখে তা লিখতে হবে। এভাবে আপনি দিনে ১ থেকে ২ ঘন্টা কাজ করলেই ২০০ টাকা আয় করতে পারবেন। ক্যাপচা এন্ট্রি করে টাকা ইনকাম করার ওয়েবসাইট হল: 2captcha

৩) ফ্রিল্যান্সিং (Freelancing) করে

মোবাইলে অযথা সময় নষ্ট না করে, আপনি ফ্রিল্যান্সিং এর বিভিন্ন কাজ শেখা শুরু করুন।

আপনি সহজ ও ছোট ছোট ফ্রিল্যান্সিং কাজ করে সহজেই ইনকাম করতে পারবেন।

ফ্রিল্যান্সিং করে ইনকাম করার অনেক ওয়েবসাইট আছে। যেমনঃ Upwork, Fiverr, Seoclerks, Peopleperhour, Guru, Freelancer ইত্যাদি।

এই সকল ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে কাজ করে শুরুর দিকে আপনি অনায়েসেই দিনে ২০০ থেকে ৩০০ টাকা বা মাসে ১০০০০ টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

আপনার অভিজ্ঞতা ও দক্ষতা বাড়ার সাথে সাথে আপনি আরো অনেক বেশি টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

অনেক ফ্রিল্যান্সার আছে, যারা মাসে ১ লাখ টাকারও বেশি ইনকাম করছেন।আপনিও এক সময় সেই অবস্থায় পৌঁছাতে পারবেন।

কয়েকটি ফ্রিল্যান্সিং কাজ হলঃ সোস্যাল মিডিয়া মার্কেটিং, লোগো ডিজাইন, টাইপিং, এসইও ইত্যাদি।

    ৪) টাইপিং করে

    আপনি যদি টাইপিং এ অনেক পারদর্শী হয়ে থাকেন। তাহলে আপনার হাতে থাকা মোবাইল দিয়ে খুব সহজেই দিনে ২০০-৩০০ টাকা আয় করতে পারবেন।

    এক্ষেত্রে আপনার Typing Speed যে অনেক বেশি হতে হবে, তা কিন্তু নয়।

    আপনি মোটামুটি মানের টাইপিং করতে পারলেই আয় করতে পারবেন।

    আর এভাবে ইনকাম করাকে আপনি আপনার ক্যারিয়ার হিসেবে নিতে পারবেন। কারণ টাইপিং কাজের দেশে ও বিদেশে অনেক চাহিদা।

    আপনি শুরুর দিকে কম টাকা ইনকাম করা শুরু করলেও ধীরে ধীরে এই কাজে আরো বেশি ইনকাম করতে পারবেন।

    টাইপিং করে আয় করার কয়েকটি বিশ্বস্থ ও নির্ভরযোগ্য ওয়েবসাইট হলঃ

    রিলেটেডঃ কিভাবে মোবাইলে টাইপিং করে টাকা ইনকাম করা যায়

    ৫) কন্টেন্ট রাইটিং করে

    আপনার যদি যেকোন বিষয়ে অনেক জানা থাকে। তাহলে আপনি সেই বিষয়ে লিখে টাকা আয় করতে পারবেন।

    এভাবে লেখালেখি করাকে কন্টেন্ট রাইটিং বলে। আপনি যেকোন বিষয়ে লিখে খুব সহজেই দিনে ২০০ থেকে ৫০০ টাকা আয় করতে পারবেন।

    Content Writing করে আয় করার জন্য আপনাকে প্রথমে Upwork, FiverrFreelancer এ একাউন্ট খুলতে হবে।

    এরপর এখানে আপনাকে কন্টেন্ট রাইটিং এ কাজগুলি করতে হবে।

    এখানে ঘন্টা হিসেবে বা ফিক্সড প্রাইজে কাজ করে সহজেই ইনকাম করতে পারবেন।

    আপনি জেনে অনেক খুশি হবেন যে, বিশ্ববাজারে কন্টেন্ট রাইটিং এর ব্যাপক চাহিদা। তাই আপনি খুব সহজেই রাইটিং কাজ পারেন। একটা সময় এভাবে লেখালেখি করে দিনে ১০০০ টাকা আয় করা আপনার কাছে কোনই ব্যাপার হবেনা।

    ৬) সোস্যাল মিডিয়া ম্যানেজার (Social Media Manager) এর কাজ করে

    সোস্যাল মিডিয়া ম্যানেজার হিসেবে আপনি ইনকাম করতে পারেন। এই কাজে আপনাকে বিভিন্ন সোস্যাল মিডিয়া একাউন্ট ম্যানেজমেন্টের কাজ হবে।

    আপনি Facebook, Twitter, Instagram ইত্যাদিতে পেজ খোলা ও ম্যানেজ করা, পোস্ট বুস্টিং করে, Reels বানানো ইত্যাদি কাজ করে আয় করতে পারবেন।

    ফ্রিল্যান্সিং বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে সোস্যাল মিডিয়া মার্কেটিং কাজ পাওয়া যায়।

    এই কাজের চাহিদা অনেক। আপনি চাইলেই এই কাজ করে ফ্রিল্যান্সিং সাইট থেকে দিনে দুইশো বা তার বেশি পরিমাণ টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

    ৭) ডাটা এন্ট্রি করে

    আপনি সহজেই আপনার মোবাইল দিয়েই দেখে দেখে ডাটা এন্ট্রি করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। Upwork, Fiverr, Peopleperhour, Freelancer ইত্যাদি মার্কেটপ্লেসে ডাটা এন্ট্রি কাজের ছড়াছড়ি।

    আর আপনি চাইলেই এখানে খুব সহজে কাজ পেতে পারেন। আর Data Entry কাজে তেমন কোন দক্ষতার প্রয়োজন হয় না।

    আপনি মোটামুটি মানের টাইপিং জানলেই ডাটা এন্ট্রি করে ইনকাম করতে পারবেন।

    ডাটা এন্ট্রি কাজের জন্য আপনাকে Google sheets, Google docs, Google slides, Google drives, Office word, Office exel, Office powerpoint ইত্যাদি বিষয়ে ধারণা থাকতে হবে।

    এগুলি অনেক সহজ। ডাটা এন্ট্রি কাজের মধ্যে copy paste জব, Data mining, web research, Data scrubbing ইত্যাদি খুব জনপ্রিয়। এই কাজগুলি অনেক সহজ।

    অনেকটা দেখে দেখে কোন কিছু টাইপ করার মত। আপনি খুব সহজেই ডাটা এন্ট্রি করে প্রতিদিন ২০০ থেকে ৪০০ টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

    এমনকি একটা সময় আপনি শুধুমাত্র ডাটা এন্ট্রি করে মাসে ৩০ থেকে ৪০ হাজার টাকাও ইনকাম করতে পারবেন।

    ৮) ছবি বিক্রি করে

    আপনি যদি খুব ভাল ছবি তুলতে পারেন, তাহলে আপনি আপনার তোলা ছবি অনলাইনে বিক্রি করে ইনকাম করতে পারবেন।

    এভাবে অনেকেই আজকাল নিজের মোবাইল দিয়ে তোলা ছবি বিক্রি করে ইনকাম করছেন।

    আপনিও ছবি বিক্রি করে ইনকাম করার বিভিন্ন ওয়েবসাইটে যুক্ত হয়ে আপনার তোলা ছবি আপলোড করে বিক্রি শুরু করে দিন।

    আপনি সহজেই এভাবে শুরু দিকে দুইশো টাকা ইনকাম প্রতিদিন ইনকাম করা শুরু করলেও ধীরে আপনার ইনকাম বাড়িয়ে নিতে পারবেন।

    কয়েকটি ছবি বিক্রি করে ইনকাম করার ওয়েবসাইট হলঃ Gettyimages, Istocks, 500px ইত্যাদি।

    ৯) Youtube ভিডিও তৈরি করে

    আমরা বর্তমানে বিনোদনের জন্য Youtube ভিডিও দেখে থাকি।

    এখানে যারা ভিডিও বানায় তারা অনেক টাকা ইনকাম করে থাকে। আপনিও এখানে ভিডিও বানিয়ে আপলোড করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

    এখানে আপনি যেকোন বিষয়ের উপর ভিডিও বানিয়ে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। Youtube এর জন্য ভিডিও বানানো অনেক সহজ।

    আপনার মোবাইলের ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও বানিয়ে তা মোবাইল apps এর মাধ্যমে এডিটিং করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

    আপনি Youtube এর মাধ্যমে Google Adsense এর বিজ্ঞাপণ দেখিয়ে অনায়েসেই ৩০০ বা ৪০০ টাকা ইনকাম করতে পারবেন দৈনিক। এছাড়া এখানে আপনি একবার ভাইরাল হলে মাসে লাখ টাকাও আয় করতে পারবেন।

    ১০) Daraz অ্যাপের মাধ্যমে

    আমরা যারা অনলাইনে কেনাকাটা করে থাকি। তারা সকলেই Daraz এর নাম শুনেছি।

    আপনি চাইলেই Daraz এর অ্যাফেলিয়েট প্রোগ্রাম ব্যবহার করে অন্যের পন্য বিক্রি করে দিয়ে ইনকাম করতে পারেন।

    কারণ এখানে অনেক অনেক প্রডাক্ট আর অনেক কাস্টমার।

    আপনাকে শুধু পন্য বিক্রি করে দিতে হবে। সেটা আপনি আপনার ফেসবুকের মাধ্যমে মার্কেটিং করে করতে পারেন।

    যা ফ্রিতেই করা সম্ভব। এভাবে দিনে অন্তত ২ থেকে ৩ টা পন্য বিক্রি করতেই পারলেই দুইশো টাকা আয় করতে পারবেন। 

    FAQ,

    অনলাইনে কাজ করে প্রতিদিন কি আসলেই ২০০ টাকা ইনকাম করা সম্ভব?

    এটা অনেক কম পরিমাণের টাকা। আপনি একদম এন্ট্রি লেভেল বা শুরুর দিকেই দৈনিক এই পরিমাণ টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

    কারণ আপনার তেমন কোন স্কিলের প্রয়োজন হবেনা।

    আপনি স্টুডেন্ট অবস্থায়, পার্ট টাইমে এভাবে ইনকাম করতে পারবেন। তবে দিন বাড়ার সাথে সাথে। আপনার কাজের দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা বাড়ার সাথে সাথে আপনার ইনকাম অনেক বেড়ে যাবে। তখন আপনি প্রতিমাসে ৫০ হাজার টাকা আয় করতে পারবেন।

    উপসংহার

    টাকা ইনকাম করা সব সময়েই আনন্দদায়ক হয়। তা যে পরিমাণ ইনকাম হোকনা কেন।

    প্রতিদিন দুইশো টাকা ইনকাম করা শুনতে অনেক কম হলেও এটা হাত খরচের জন্য কিন্তু অনেক টাকা। তবে এভাবে ইনকাম করতে থাকলে আপনার মধ্যে ইনকাম করার প্রবণতা তৈরি হবে।

    আর দিনে ২০০ টাকা থেকে আপনি তখন অনায়েসেই দিনে ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা ইনকাম করা শুরু করে দিতে পারবেন।

    আর ধীরে ধীরে আপনি ভাল পরিমাণ টাকা ইনকাম করা শুরু করে দিতে পারবেন।

    পোস্টটি শেয়ার করুন-