একটি ওয়েবসাইটের স্বার্থকতা নির্ভর করে এর গতির উপর। একটি ওয়েবসাইট যত বেশি গতিশীল সেই ওয়েবসাইটে তত বেশি  ভিজিটর হয়। তত বেশি সেই ওয়েবসাইটের উদ্দেশ্য পূরণ হয়।  প্রথমত সে ওয়েবসাইট থেকে টাকা আয় করা যায়। কারণ সে ওয়েবসাইটে বেশি ভিজিটর প্রবেশ করে। আর এই কাজটি  সাধারণত একটি ক্যাশিং প্লাগিন খুব ভালোভাবে করে থাকে। আর ক্যাশিং প্লাগিনগুলো ফ্রি এবং পেইড দুই ভাবেই পাওয়া যায়। সাধারণত ফ্রি ভার্সনেই একটি ওয়েবসাইটকে অনেক বেশি গতিশীল করা যায়। ওয়ার্ডপ্রেসের ক্যাশিং প্লাগিন্স এর মধ্যে তিনটি ক্যাশিং প্লাগিন সবথেকে ভালো। সেগুলো হল-

১. W3 total cache

২. Wp super cache

৩. Wp optimize

w3 Total Cache

W3 total cache  খুবই পাওয়ারফুল একটা প্লাগিন। এটি দিয়ে একটি ওয়েবসাইটের পেজ ক্যাসে, পোস্ট ক্যাশে এবং ব্রাউজার ক্যাসে করা সম্ভব হয়। ক্যাশে মানে একটি ভিজিটর যখন আপনার ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে তখন এই প্লাগিন তার একটি ক্যাশে ওয়েবসাইটে নিয়ে রাখে। যার ফলে পরবর্তীতে সে যখন সে ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে একটা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে দ্রুত ঢুকতে পারে। আপনার যদি ক্যাশিং প্লাগিন ২৪ ঘন্টা  করা থাকে তাহলে সেই ভিজিটর ২৪ ঘন্টার ভিতরে যদি আপনার ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে। একবার প্রবেশ করার পর আবার ২৪ ঘন্টার ভিতরে যদি সেই ওয়েবসাইটের প্রবেশ করে সে ক্ষেত্রে সে খুব ঢুকতে পারবে।

যেভাবে w3 total cache ইন্সটল করতে হয়-

প্রথমে প্লাগইন থেকে w3 total cache ইন্সটল করে নিতে হবে।  তারপর সেটি একটিভ করে নিতে হবে। 

একটিভ করার পর এর জেনারেল সেটিংস থেকে পেজ ক্যাশ ইনবিল করে দিতে হবে। এবং ব্রাউজার কাছে ইনাবেল করে সেট করতে হবে। এরপর save setting and purge  করতে হবে।

এরপর পেজ ক্যাশে থেকে প্রথম চারটি অপশন টিক দিতে হবে। এবং লাস্টের তিনটি অপশন ঠিক দিতে হবে দিয়ে সেভ সেটিংস অ্যান্ড পার্ট এসে করতে হবে। এছাড়া cache preload থেকে Automatically prime the page cache 900 sec  এবং Preload the post cache upon publish events টিক দিয়ে save setting করতে হবে।

Browser cache অপশন থেকে প্রথম ছয়টি বাটনে প্রথমে টিক দিতে হবে এবার দুটি বাটন ফাঁকা রেখে তারপর টিক দিতে হবে তারপর এবার save settings and purge cache তে ক্লিক করতে হবে। এভাবে w3 total cache সেট করা যাবে। এতে করে আপনার ওয়েবসাইট অনেক বেশি গতিশীল হবে।

Wp Super Cache

Wp super cache ওয়ার্ডপ্রেস এর খুবই জনপ্রিয় একটি ক্যাশিং প্লাগিন। এটাও w3 total cache এর মতই খুবই পাওয়ারফুল একটি প্লাগিন। এটি প্রথমে একটিভ করে নিতে হবে। একটিভ করার পর এর সেটিংসে ক্লিক করতে হবে। এখান থেকে ইজি অপশন থেকে ক্যাশিং অন সেট করে দিতে হবে। আপডেট স্ট্যাটাস বাটনে ক্লিক করতে হবে এবার অ্যাডভান্স অপশন থেকে কমপ্রেস পেজ এই বাটনে ক্লিক করতে হবে। এছাড়া এডভান্স থেকে ইনএবল ডায়নামিক ক্যাশিং এক্সট্রা হোমপেজ চেক দিতে হবে এবার সেভ বাটন ক্লিক করতে হবে

Wp-Optimize

Wp optimize খুবই জনপ্রিয় একটি প্লাগিন। এই প্লাগিনসে এক মিলিয়ন প্লাস একটিভ ইনস্টলেশন রয়েছে। এই প্লাগিন্সের মাধ্যমে ওয়েবসাইটের স্পিড, পারফরম্যানস্‌, ডাটাবেজ ক্লিন এবং সকল ধরনের ক্যাশে করা যায়। এজন্য প্রথমে ইনস্টল বাটনে ক্লিক করে প্রথমে  ইনস্টল করে নিতে হবে। এরপর অ্যাক্টিভ বাটনে ক্লিক করে একটিভ করে নিতে হবে। এবার সেটিংস অপশনে যেয়ে কিছু সেট করতে হবে না।

এর Database অপশন থেকে ওয়েবসাইটের অপ্রয়োজনীয় ডাট ডিলিট করা যাবে। যাতে করে ওয়েবসাইট অনেক বেশি ফাস্ট হবে।

এর image অপশন থেকে ওয়েবসাইটের সকল ইমেজের সাইজ ছোট করা যাবে। এতে করে ওয়েবসাইটটির গতি অনেক বৃদ্ধি পাবে।

এরপর cache অপশন থেকে page cache এনাবেল করে দিতে হবে।   

এরপর save settings বাটনে ক্লিক করতে হবে।