আবারও দেশের ক্রিকেটে বিতর্ক তৈরি করে শিরোনামে এলেন সাব্বির রহমান। একসময়ের প্রতিভাবান ক্রিকেটার এবার চলতি ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) প্রতিপক্ষ ক্রিকেটারের সঙ্গে অসদাচরণ ও বর্ণবাদী মন্তব্য করেছেন। যে কারণে জাতীয় দলের বাইরে থাকা এ তারকা ক্রিকেটারকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা গুনতে হবে। একই সঙ্গে অভিযোগকারী দল শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের ম্যানেজার ম্যানেজার টিপু সুলতান মাহমুদকেও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা গুনতে হচ্ছে।

আজ বৃহস্পতিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে শাস্তির বিষয়টি জানিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। উল্লেখ্য, গতকাল বুধবার ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ টি-টোয়েন্টিতে বিকেএসপির তিন নম্বর মাঠে ওল্ড ডিওএইসএসের বিপক্ষে লড়ছিল শেখ জামাল। ডিওএইচএসকে ১২১ রানের লক্ষ্য দিয়ে শেখ জামাল তখন ফিল্ডিংয়ে। ডিপ স্কয়ার লেগে ফিল্ডিং করছিলেন শেখ জামালের স্পিনার ইলিয়াস সানি। এমন সময় হঠাৎ মাঠের বাইরে থেকে তাকে ইট ছুড়ে মারেন লেজেন্ডস অব রূপগঞ্জের ক্রিকেটার সাব্বির।

Advertisement

এরপর সাব্বিরের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিস (সিসিডিএম) বরাবর লিখিত অভিযোগ করে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব কর্তৃপক্ষ। সিসিডিএমে পাঠানো চিঠিতে শেখ জামাল লিখেছে, ‘অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে জানাচ্ছি যে, ১৬ জুন ২০২১ তারিখে বিকেএসপির ৩ নম্বর মাঠে শেখ জামাল ধানমন্ডি বনাম ওল্ড ডিওএইচএস স্পোর্টসের খেলা চলাকালীন শেখ জামালের খেলোয়াড় ইলিয়াসকে লেজেন্ডস অব রূপগঞ্জের খেলোয়াড় সাব্বির রহমান মাঠের বাইরে থেকে বিনা কারণে ইট ছুঁড়ে মারেন।’

অবশ্য সাব্বির রহমান বরাবরের মতোই সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘ইট মারার প্রশ্নই আসে না এখানে। আমি ইট মারা বা গালিগালাজ দেওয়ার মতো কোনো কাজই করিনি। এখন মাঠের খেলায় মন দেওয়াই আমার একমাত্র কাজ। আমি অন্য কোনো দিকে চিন্তা করতে পারি না।’ ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিসের একজন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানিয়েছেন, এখনো ইট মারার ঘটনার কোনো প্রমাণ এখনো তারা পাননি। তবে বাদানুবাদ হয়েছে এটুকু নিশ্চিত।

Advertisement