সুন্দর ও উজ্জ্বল ত্বক কে না চায়। আর এই উজ্জ্বল ত্বক পেতে আমরা কত কিছুই না ব্যবহার করে থাকি। কিন্তু তারপরেও আমরা কাংখিত উজ্জ্বলতা পাই না, শুধুমাত্র উপকারী খাবারের ঘাটতিতে। প্রতিদিন আমরা অনেক বাজে ফাস্টফুড, তেল জাতীয় খাবার, গ্রহনের ফলে আমাদের ত্বকের সৌন্দর্য ম্লান হয়ে যায়। এমন অনেক ফল ও সবজি আছে যা খেলে আমাদের ত্বক প্রাকৃতিকভাবেই অনেক স্বাস্থ্যবান ও উজ্জ্বল হয়। কারণ এই খাবারগুলি ত্বকের মধ্যে অনেক পুষ্টি যোগান দিতে সক্ষম হয় আর ত্বকের ডেড সেল গুলি পরিষ্কার করে,
যাতে ত্বকের উজ্জলতা অনেক বৃদ্ধি পায় আত ত্বক অনেক গ্লো করে। দেখে নেই কি কি খাবারে উজ্জ্বল ত্বক পাওয়া সম্ভবঃ

Advertisement

স্ট্রবেরি ও ব্লুবেরিঃ

স্ট্রবেরি ও ব্লুবেরিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি। যা ত্বককে সুন্দর ও উজ্জ্বল রাখতে মুখ্য ভুমিকা পালন করে। এছাড়া ব্লুবেরিতে রয়েছে এন্টি অক্সিডেন্ট উপাদান, যা ত্বককে বুড়ো হয়ে যাওয়া থেকে রক্ষা করে।

টমেটো, গাজর

টমেটোতে রয়েছে লাইকোপিন, যা এন্টি এজিং হিসেবে কাজ করে। এছাড়া গাজরে আছে বিটা কারোটিন, যা সূর্যের ক্ষতি থেকে ত্বককে রক্ষা করে থাকে। এছাড়া গাজরের ভিটামিন এ ড্যামেজ হওয়া ত্বককে ঠিক করে ত্বককে অনেক উজ্জ্বল ও ফর্সা করে।

লেবুঃ

লেবুতে রয়েছে ভিটামিন সি যাতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ এসকর্বিক এসিড যা প্রাকৃতিক এন্টি অক্সিডেন্ট হিসেবে কাজ করে। যা ত্বক ড্যামেজ হওয়া থেকে রক্ষা করে। তাই প্রতিদিন সকালে খালি পেটে একটি পাতিলেবু থেকে রস বের করে ১ গ্লাস পানির সাথে মিশিয়ে খেলে ত্বক অনেক উজ্জ্বল ও সুন্দর হবে।

আনারস ও কমলাঃ

আনারসে ভিটামিন সি এর পাশাপাশি রয়েছে এনজাইম ত্বকের ডার্ক স্পটকে দূর করে ত্বককে করে তোলে উজ্জ্বলময় আর কমলাতে থাকা ভিটামিন সি এন্টি অক্সিডেন্ট হিসেবে কাজ করে, যা সূর্যের অতিবেগুনী রশ্মী থেকে ত্বককে রক্ষা করে। আর এগুলো নিয়মিত খাওয়ার ফলে ত্বক হয়ে উঠে অনেক ফর্সা ও আকর্ষণীয়।

ডিমঃ

ডিম তো আমরা কমবেশি সবাই প্রতিদিন খাই। এই ডিমও কিন্তু ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। ডিমে রয়েছে অ্যামিনো এসিড আর এন্টি অক্সিডেন্ট যা সূর্যের ক্ষতিকর আলো থেকে ত্বককে রক্ষা করে। তবে ডিমের সাদা অংশ এক্ষেত্রে বেশি কাজ করে থাকে। এছাড়া ডিমের কুসুমেও প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন রয়েছ যা ত্বকের সেল ফাংশনকে ঠিক রাখে। এছাড়া এতে রয়েছে উপকারী বায়োটিন যা তকের দাগ, ব্রণ, র‍্যাশ থেকে ত্বককে রক্ষা করে। আর নিয়মিত প্রতিদিন ডিম খেলে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ে।

ব্রকলি ও পালং শাকঃ

ত্বককে ফর্সাকারী ভিটামিন এ রয়েছে পালং শাকে। যা ত্বকের শুষ্কতা, ত্বকের চুলকানি দূর করে ত্বককে কমল করে। আর এটি ত্বককে অনেক উজ্জ্বল করে তোলে। তাই আমাদের নিয়িমিত খাবারের তালিকায় পালং শাক থাকা উচিত। আর ব্রকলিতেও রয়েছে ভিটামিন সি ও এন্টি অক্সিডেন্ট যা ত্বককে ফর্সা করতে অত্যন্ত উপকারী।

কাঠবাদাম, আখরোটঃ

আখরোটে রয়েছে উপকারী প্রয়োজনীয় ফ্যাটি এসিড যা ওমেগা ৩ সম্মৃদ্ধ। আর এই ওমেগা ৩ নিয়মিত গ্রহণ করলে ত্বকের বিভিন্ন র‍্যাশ থেকে রক্ষা পায় ঐ ত্বক অনেক উজ্জ্বল হয়। আর কাঠবাদামে রয়েছে ত্বকের সবথেকে উপকারী ভিটামিন ই। আর এটি নিয়মিত খেলে ত্বক প্রাকৃতিকভাবেই ফর্সা হয়ে উঠে।

গ্রীন টিঃ

আমরা প্রতিদিন চা বা কফি খাই। কিন্তু এটার পরিবর্তে যদি আমরা প্রতিদিন গ্রীন টি খাই, সেটা যেমন আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী হবে, ঠিক তেমনি এটি ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। গ্রীন টি সরাসরি আমাদের ত্বককে উজ্জ্বল করে।

পাকা পেপেঃ

পাকা পেপেতে রয়েছে প্যাপাইন যা ত্বকের বাজে দাগ খুব তাড়াতাড়ি দূর করতে খুব কার্যকর। নিয়মিত পাকা পেপে খেলে ত্বকের ব্রণও দূর হয়ে যায়। শুধু তাই নয় পাকাপেপেতে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি ও রয়েছে যা ত্বককে কালো হয়ে যাওয়া থেকে রক্ষা করে ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধি করে।

Advertisement