সুন্দর ও সাদা দাঁত সবাই পছন্দ করে। আমরা যখন ঝকঝকে সাদা দাঁত নিয়ে হাসি, তখন সবাই আমাদের দিকে মনোযোগ দিয়ে তাকিয়ে থাকে। কিন্তু নানা কারণে আমাদের দাঁত হলুদ হয়ে যায়। দাঁতে পাথর জমে। বিশেষ করে দাঁতের ভিতরের দিকটাই অনেক বেশি হলদেটে ও লালচে হয়ে যায়। দেখে নিন কি কি কারণে আমাদের দাঁত এমন হলুদ হয়ঃ

১। দীর্ঘদিন ধরে চা-কফি, কমল পানিয় ও বিভিন্ন খাবার খাওয়ার ফলে।

২। চিনি জাতীয় খাবার বেশি খাওয়ার ফলে।

৩। ধুমপান ও পান খাওয়ার ফলে।

৪। পানিতে অর্সেনিক থাকার ফলে।

৫। নিয়মিত ব্রাশ না করার ফলে।

৬। অতিরিক্ত বয়স হয়ে যাবার ফলে

৭। দীর্ঘদিন ধরে কোন ওষুধ খাওয়ার ফলে।

৮। বংশগত কারণে।

উপরের এই কারণগুলির ফলে দাঁত হলদেটে হয়ে যায়। তবে বাড়িতে বসেই কিছু সহজ উপায়ে এই হলুদ দাঁত ঝকঝকে সাদা করা যায়। দেখে নিন কিছু উপায়ঃ

নিয়মিত সঠিক নিয়মে ব্রাশ করাঃ

প্রতিদিন কমপক্ষে ২ বার ব্রাশ করতে হবে। তবে ব্রাশ করার সময় দাঁতের ভেতরে ও বাইরে খুব ভালভাবে ব্রাশ করতে হবে। চা-কফি, কমল পানীয়, চকলেট, মিষ্টি জাতীয় খাবার খাওয়া শেষে ব্রাশ করতে হবে। ইলেক্ট্রিক টুথব্রাশ দিয়ে ব্রাশ করলে খুব ভাল ফল পাওয়া যায়।

নারিকেল তেলঃ

২-৩ চামচ খাঁটি নারিকেল তেল মুখে নিয়ে ভাল করে কুলকুচি করতে হবে। এটা ২০-৩০ মিনিট ধরে করতে হবে। এতে করে মুখের ব্যাকটেরিয়া গুলি ধ্বংস হয়ে যাবে ও দাঁত অনেক মজবুত ও চকচকে হয়ে উঠবে। এছাড়া এটি দাঁতে প্লাগ হতে বাধা দিবে। এটা করার পর প্রথমে কুলি করে নিতে হবে। এরপর ব্রাশ করতে হবে।

আপেল সিডার ভিনেগারঃ

আপেল সিডার ভিনেগার দাঁত সাদা করতে খুবই কার্যকর। আধা গ্লাস পানিতে ২ চামচ আপেল সিডার ভিনেগার মিশিয়ে মিশ্রণটি মুখে নিয়ে ১ মিনিট ভালভাবে কুলকুচি করতে হবে ও আঙ্গুল দিয়ে দাঁতের উপর ঘষতে হবে। এরপর ব্রাশ করে ,মুখ ধুয়ে ফেলতে হবে।

কলা, কমলা ও লেবুর খোসাঃ

ব্রাশ করার আগে এই খোসা গুলি দিয়ে দাঁত ভাল করে ঘষতে হবে। এরপর ব্রাশ করে নিতে হবে। এতে দাঁত খুব দ্রুত চকচকে সাদা হতে থাকবে।

ফলমূল ও শাকসবজি খাওয়াঃ

নিয়মিত ফলমূল খেতে হবে। বিশেষ করে আনারস, স্ট্রবেরী, পেঁপে নিয়মিত খেলে দাঁতের উজ্জ্বলতা বাড়ে। এছাড়া নিয়মিত সবুজ শাকসবজি খেলে দাঁত অনেক ভাল থাকে ও দাঁতের হলদে ভাব দূর হয়।