আপনার যদি একটি ওয়েবসাইট থাকে এবং সেই ওয়েবসাইটের লিংক বা সার্ভিস বা সেই ওয়েব সাইটের পেজ আপনি যদি অনেক বেশি মানুষের কাছে পৌঁছাতে চান। তাহলে আপনি ফেসবুকে টাকা দিয়ে বিজ্ঞাপন দিতে পারেন। এটিকে ফেসবুক পেইড প্রমোশন বলে। ফেসবুকে এই প্রমোশনের মাধ্যমে আপনি অনেক বেশি পেজে লাইক আনতে পারবেন। আপনার কাস্টমারের কাছে আপনার প্রোডাক্টটি পৌঁছাতে পারবেন। এছাড়া আপনি ব্লগ বা আর্টিকেল ওয়েবসাইটে অনেক বেশি ভিজিটর আনতে পারবেন। তবে সেক্ষেত্রে ফেসবুকে টাকা প্রদান করে আপনার পেজের পোস্টটিকে বুস্ট করাতে হবে। 

কিভাবে ফেসবুক পেজকে বুস্ট করাতে হবে বা এড ক্যাম্পিইয়েন তৈরি করতে হবে সেটা এখন দেখব।

১. এজন্য প্রথমে আপনাকে ফেসবুক থেকে  Ads Manager এ ক্লিক করতে হবে।

২. এড ম্যানেজারের Billing অপশন থেকে প্রথমে আপনাকে একটি কার্ড সেটআপ করতে হবে। সেই কার্ডটি ক্রেডিট কার্ড হলে সবথেকে ভালো। আর কার্ডটি অবশ্যই ইন্টারন্যাশনাল ট্রাঞ্জাকশনের সাপোর্টেড হতে হবে। কার্ডটি অবশ্যই আপনার নামে হলে আরো ভালো হয়

৩. এবার বিলিং থেকে অ্যাড পেমেন্ট মেথডে ক্লিক করতে হবে। সেখান থেকে আপনার তথ্য এবং আপনার ঠিকানা দিয়ে প্রথমে কার্ডটি সেট করে নিতে হবে।

যেভাবে ফেসবুকে অ্যাড দিতে হয়

১. প্রথমে ড্যাশবোর্ড থেকে অ্যাড ক্যাম্পেইন থেকে create বাটনে ক্লিক করতে হবে। 

২. এখান থেকে আপনি অ্যাওয়ারনেস,  ট্রাফিক, এনগেজমেন্ট, লিড, সেলস্‌ যেকোনো একটি সেট করে ক্লিক করতে হবে। 

৩. এবার আপনাকে একটি ক্যাম্পেইনের নাম দিতে হবে। তারপর আপনার স্পেশাল ক্যাটাগরিতে ক্রেডিট সেট করতে হবে। এবার বাংলাদেশ কান্ট্রি সেট করতে হবে।  বাইং টাইপ এই ধরনের কোন কিছুর দরকার নেই, যদি শুধু ট্রাফিক যান এবারে আপনাকে একটি ডেইলি বাজেট সেট করতে হবে। নিচ থেকে এড সিডিউল করতে পারবেন। 

৪. এবার আপনার অ্যাড সেট একটি নাম দিতে হবে। কনভার্সনে আপনার ওয়েবসাইট মেসেঞ্জার হোয়াটসঅ্যাপ কল দিতে হবে। আপনি কোথায় বেশি এনগেজমেন্ট চাচ্ছেন সেটা সেট করে দিতে হবে। এবার কস্ট পার রেজাল্ট গোল সেট করতে হবে। এখানে ইম্প্রেশন অনুযায়ী দিলে সেটা ভালো হবে।

৫. এবার আপনার বাজেট এবং সিডিউল সেট করতে হবে। 

শিডিউল সেট করা

৬. আপনি কোন সময় থেকে কোন সময় অ্যাড সেট করাতে চান এবং কবে এটি শেষ করতে চান সেটা সেট করতে হবে। এবার আপনার অডিয়েন্স তৈরি করতে হবে। 

৭. আপনার লোকেশন টি কোথায় সেট করতে হবে এবং কবে দিতে চান সেটা সেট করতে হবে। এছাড়া আপনার অডিয়েন্সের জেন্ডার কি ছেলে বা মেয়ে হবে সেটা সেট করে দিতে হবে। 

৮. এরপর এডভান্স প্লেসমেন্টে আপনার ম্যানুয়াল প্লেসমেন্ট থেকে আপনি  কোথায় কোথায় এডটি দেখাতে চান সেটা সেট করে দিতে হবে। যখন ফ্রিডে অডিটেন্স নেট ওয়ার্ক কে ইনস্টাগ্রামে মেসেঞ্জারে সম্ভবত সেট করে দিতে হবে অথবা আপনি যদি মনে করেন যে আপনি অ্যাডভান্টেজ প্লাস প্লেসমেন্ট এমনি দিবেন তাহলে সেটা রেখে নেক্সট বাটনে ক্লিক করতে হবে। এরপর next বাটনে ক্লিক করতে হবে।

৯. পরবর্তী পেজে আপনার একটি পেজ এর নাম সেট করতে হবে। আপনি যে পেজ থেকে একটি দিতে চাচ্ছেন সেই পেজটি সেট করতে হবে। আপনি চাইলে instagram থেকে দিতে পারেন। 

অ্যাড সেটআপ

১০. এবার আপনাকে Ad setup করতে হবে Ad setup করার জন্য প্রথমে আপনাকে ইমেজ অ্যাড করতে হবে। ইমেজ আপনি সিঙ্গেল ইমেজ দিবেন না।  মাল্টিপলি দিবেন। সেটা সেট করতে হবে। এড মিডিয়া থেকে একটি ইমেজ দিতে হবে। ইমেজটি রেজুলেশন ভালো হতে হবে।

১১. এবার আপনাকে একটি প্রাইমারি text দিতে হবে অর্থাৎ হেডারের টেক্সট দিতে হবে।

১২. এরপর ডেসক্রিপশন দিতে হবে। তারপর একটি কল টু অ্যাকশন দিতে হবে। এখানে Apply now,  Contact Us,  Download এ ধরনের যেকোনো বাটন পাওয়া যাবে। এদের যেকোন একটি টিক দিতে হবে।

১৩. এছাড়া এখানে একটি Destination দেয়া যেতে পারে। যেটা অপশনাল। ফোন কলের একটি অপশন দেয়া যেতে পারে। সেখানে আপনার ফোন নাম্বারটি দিয়ে দিতে হবে। 

এরপর Publish বাটনে ক্লিক করতে হবে। ২৪ ঘন্টার মধ্যে আপনার একটি অ্যাডটি চালু হয়ে যাবে। ২৪ ঘন্টা পর ফেসবুকে অ্যাড দেখানো শুরু করবে। এবার আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর ঢোকা শুরু হবে।