বিশ্বকাপ বাছাইয়ের শেষ তিন ম্যাচের ওপর দাঁড়িয়ে এখন দেশের ফুটবল। এখানে পয়েন্টের প্রত্যাশার সঙ্গে আছে আশাভঙ্গের ভয়। আশা-নিরাশার এই দোলাচলকে সঙ্গী করে আজ দোহায় জেমি ডের দল মুখোমুখি হবে আফগানিস্তানের।

বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় ম্যাচটি শুরু হবে জসিম বিন হামাদ স্টেডিয়ামে। কাতার যত উত্তপ্তই হোক, এই স্টেডিয়ামের ভেতরে তার আঁচ লাগবে না। এটি বিশ্বের প্রথম শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত স্টেডিয়াম। বাইরে ৪০-৪২ ডিগ্রি পড়লেও মাঠে খেলা হবে ২৫ ডিগ্রি তাপমাত্রায়। এখন ঢাকায়ও এমন চমৎকার পরিবেশে খেলার উপায় নেই। তাই গরমের ভয় তাড়িয়ে জামাল ভুঁইয়া বলেছেন বড় স্বপ্নের কথা, ‘আফগানিস্তানের বিপক্ষে আমরা একটি কঠিন ম্যাচ খেলতে নামছি। ওরা শারীরিকভাবে আমাদের চেয়ে এগিয়ে থাকলেও আমরা গতি ও টেকনিকে শক্তিশালী। একটি ভালো ম্যাচ খেলার জন্যই আমরা মাঠে নামব এবং ৩ পয়েন্ট নিয়ে ম্যাচ শেষ করতে চাই।’

Advertisement

আফগানিস্তান ও ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ দুটিতে পয়েন্ট পাওয়ার সুযোগ দেখছে বাংলাদেশ। অথচ ২০১৯ সালে আফগানিস্তানের কাছে হেরে বিশ্বকাপ বাছাই পর্ব শুরু করেছিল জামালরা। দুশানবের সেই ম্যাচে শেষ দিকে গোল খেয়ে হারলেও আফগানদের বিপক্ষে লড়াই করেছিল লাল-সবুজের দল। ওই লড়াইটুকুই খেলোয়াড়দের মনে আত্মবিশ্বাস সঞ্চার করছে এই ম্যাচের আগে। তবে বাংলাদেশের কোচ জেমি ডে’র বিশ্লেষণে দুশানবের চেয়েও কঠিন হবে এই ম্যাচ, ‘তাদের বেশ কিছু ভালো খেলোয়াড় আছে, যারা ইউরোপ ও এশিয়ায় উন্নতমানের লিগে খেলে।

আমার মতে, এই সময়ে তারা সেরা প্রস্তুতি নিয়ে খেলতে নামছে। তাই ম্যাচটি খুবই কঠিন হবে এবং দুশানবের চেয়েও কঠিন হবে।’ গত মাসে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচে তারা ইন্দোনেশিয়াকে হারানোর পর ড্র করেছে সিঙ্গাপুরের সঙ্গে। তাই নিজেদের প্রস্তুতি নিয়ে খুশি নন জেমি, ‘আমরা শতভাগ প্রস্তুত নই। ছেলেরা সাধ্যমতো চেষ্টা করছে। গত সাত দিন তারা কঠোর পরিশ্রম করেছে।’ বাফুফের পরিকল্পনা ছিল ঢাকা ও কাতারে দলের প্র্যাকটিস ক্যাম্প করার। গত ১৬ মে থেকে ঢাকায় বাংলাদেশ দলের প্রস্তুতি শুরু হলেও এক সপ্তাহ পর আর কাতার যাওয়া হয়নি। পারেনি কোনো আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচও খেলতে।

এর পরও পয়েন্টের স্বপ্ন দেখছে বাংলাদেশ। স্বপ্ন সফল করতে জেমি ডে-ও নতুন ফরমেশনে খেলানোর ছক কষছেন। আগে চার ডিফেন্ডার নিয়ে খেললেও আজ দেখা যাবে পাঁচ ডিফেন্ডারের দল। দুই ফুলব্যাক আক্রমণে উঠলেও যেন রক্ষণ খালি না হয়। আর সুযোগ এলে যেন চার-পাঁচজন পাল্টা আক্রমণে থাকে, সেটার অনুশীলন হয়েছে দেশে। কিন্তু চোটজর্জর দলে নেই বাছাই পর্বে সর্বশেষ ম্যাচ কাতারের বিপক্ষে খেলা পাঁচজন—ইয়াসিন খান, বিশ্বনাথ, মাহবুবুর রহমান, নাবিব নেওয়াজ ও সাদ উদ্দিন।

করোনামুক্ত হয়ে মোহাম্মদ ইব্রাহিম দুদিন আগে কাতার পৌঁছালেও আজ মাঠে নামার কোনো সুযোগ নেই। তাই যাঁরা আছেন তাঁদের নিয়েই ইংলিশ কোচের পয়েন্টের অঙ্ক। মতিন মিয়া কিংবা সুমন রেজায় অঙ্ক মিলে গেলে হবে দারুণ ব্যাপার। পাঁচ ম্যাচে মাত্র ১ পয়েন্ট পাওয়া বাংলাদেশের ফুটবলের জন্য এখন পয়েন্টের অঙ্ক মেলানো খুব জরুরি। তখন বাংলাদেশের ফুটবলারদের মানের প্রশ্নেরও একটা জবাব হবে।

জেমি ডে’রও বলার মতো কিছু থাকবে। যদিও এই ইংলিশ কোচ তাঁর চাকরি নিয়ে চিন্তিত নন বলে জানিয়েছেন, ‘আমি চাকরি নিয়ে ভাবছি না। বাফুফের সিদ্ধান্ত তো আমি নিতে পারব না, তারাই সিদ্ধান্ত নেবে।’ এই ঘোলাটে পরিস্থিতি বদলাতে পারে কেবল বাছাই পর্বের শেষ তিনটি ম্যাচ। আফগানিস্তানের বিপক্ষে আজ পয়েন্টের প্রত্যাশা পূরণ হলে পরিস্থিতি বদলে যাওয়ার কথা।

Advertisement