পোষ্য স্ত্রী ছাগলের (ছাগী) কাছে যাওয়ার ‘অপরাধে’ এক পুরুষ ছাগল (ছাগ)-কে পিটিয়ে মারার অভিযোগ উঠেছে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় পুরুষ ছাগলের মালকিন থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

ঘটনাটি ঘটেছে বিহারের কাইমুরের চৌরাসিয়া গ্রামে। রাধা দেবী নামের এক মহিলার অভিযোগ, তার পোষ্য পুরুষ ছাগল পড়শি সিপু রাম নামের এক ব্যক্তির বাড়িতে ঢুকেছিল। সিপুর একটি পোষ্য স্ত্রী ছাগল রয়েছে। তার কাছে যাওয়ায় সিপু লাঠি দিয়ে তার পুরুষ ছাগলকে মারেন।

Advertisement

রাধা বলেন, আমি ক্ষেতে কাজ করছিলাম। আমাকে এসে একজন এই ঘটনার কথা বলে। আমি দৌড়ে গিয়ে দেখি সিপুর বাড়ির উঠোনে আমার ছাগল পড়ে রয়েছে। পাশে সিপু লাঠি হাতে দাঁড়িয়ে ছিল। সিপু আমাকেও ভয় দেখায়।

এই ঘটনার পরেই গ্রামের এক পুলিশকর্মী রাধাকে থানায় অভিযোগ জানাতে বলেন। তখনই মোহনিয়া থানায় গিয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। রাধা বলেন, আমি চাই পশু হত্যার মতো জঘন্য অপরাধ করার জন্য সিপুর কঠিন শাস্তি হোক। আমি পুরো ঘটনা পুলিশকে জানিয়েছি।

এই প্রসঙ্গে মোহনিয়া থানার এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, পশুকে পিটিয়ে মেরে ফেলার একটি অভিযোগ দায়ের হয়েছে। অভিযোগকারী মহিলা সঙ্গে মৃত পুরুষ ছাগলটির দেহ থানায় এনেছিলেন। দেহটি ভেটেরনারি হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। সেখানেই ময়নাতদন্ত হবে। ভেটেরনারি হাসপাতালের চিকিৎসক রবি শঙ্কর বলেন, ময়নাতদন্ত হয়েছে। তিন-চার দিনের মধ্যেই রিপোর্ট চলে আসবে।

Advertisement