ছোটবেলা থেকেই আমরা সকলেই জানি যে, পেয়াজের রস চুলের জন্য খুবই ভাল। পেয়াজের রস ব্যবহারে চুল হয় অনেক মজবুত। কিন্তু আসলেই কি পেয়াজ চুলের জন্য ভাল, আর কিভাবেই এর ব্যবহার করতে হয় দেখে নিন-

পেয়াজের রসের উপকারঃ

পেয়াজের রস চুলকে ধূসর ও বাদামী হয়ে নষ্ট হয়ে যাওয়া থেকে রক্ষা করে।
পেয়াজের রস চুলিকে খুশকি মুক্ত করে ও মাথার ত্বকের শুষ্কতা ও চুলকানি দূর করে।
পেয়াজের রস চুল পড়া কমায় ও চুলকে পাতলা হয়ে যাওয়া থেকে রক্ষা করে।
পেয়েজের রস চুল ভেঙ্গে যাওয়া রোধ করে ও মাথার ত্বকের সংক্রমণ রোধ করে, চুলের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে।

পিয়াজে আছে উচ্চমাত্রার সালফার, যা আমাদের দেহের খুবই প্রয়োজনিয় একটি উপাদান। সালফার হল প্রোটিনের একটি উপাদান। আর এই প্রোটিন ও কেরাটিন সালফার সম্মৃদ্ধ হওয়ায় এটি শক্তিশালী চুল গজাতে সাহায্য করে। এটা চুল পড়া রোধ করে ও চুলের বৃদ্ধি ঘটায়। এই সালফার অধিক মাত্রায় কোলাজেন উৎপাদন করে, যা স্বাস্থ্যকর ত্বকের কোষ ও চুলের বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। এছাড়া পেয়াজের রস মাথার ত্বকের রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি করে, যা চুলের বৃদ্ধিকে উন্নত করে।

সবার প্রথমে একটি কথা মাথায় রাখতে হবে তা হল, যাদের পেয়াজে অ্যালার্জি আছে, তারা কখনোই পেয়াজের রস ব্যবহার করবেন না। আর যারা পেয়াজের গন্ধ সহ্য করতে পারেন না, তারাও এটি থেকে দূরে থাকুন।

এখন দেখুন, কিভাবে পেয়াজের রস ব্যবহার করবঃ

প্রথমে কয়েকটি পেয়াজের খোসা ছাড়িয়ে টুকরো টুকরো করে নিন। এরপর এই টুকরো গুলোর সামান্য পানি মিশিয়ে ভাল করে ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে নিন। এরপর এগুলো ছেকে এখান থেকে রস বের করে নিন। এরপর এই রসের থেকে ১ চামচ রসের সাথে ২ চামচ নারিকেল তেল বা অলিভ ওয়েল যোগ করে মাথার স্ক্যাল্পে প্রয়োগ করুন। ৩০ মিনিট পর মাথা মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এভাবে প্রতি সপ্তাহে একবার করুন।