রাজশাহীর পুঠিয়ায় এক বিধবা নারীকে গলাকেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। মঙ্গলবার বিকেলে বাড়ির পাশের বিলে ছাগল চড়াতে গেলে তাকে একা পেয়ে দুর্বত্তরা গলাকেটে হত্যা করে।
নিহত আতেকা উপজেলার জিউপাড়া ইউনিয়নের ধোপাপাড়া কারিকর পাড়া গ্রামের মৃত আতাহার আলীর বিধাব স্ত্রী।

হত্যার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে চার জনকে আটক করেছে পুঠিয়া থানা পুলিশ। আটককৃতরা হলো, ধোপাপাড়া কারিগর পাড়া গ্রামের সফের কারিগরের ছেলে ইয়ানুস কারিগর, টাটু কারিগরের ছেলে ছবির কারিগর, জয়নুউদ্দিন কারিগরের ছেলে বুলবুল কারিগর ও কাদের কারিগরের ছেলে মোজাহার আলি কারিগর।

Advertisement

এলাকাবাসী জানায়, দুইবছর আগে আতেকার স্বামী আতাহার আলী মারা যায়। এরপর থেকে সে সন্তানদের নিয়ে স্বামীর ভিটায় বসবাস করতেন। পাশাপাশি ছাগল পালন করতেন। প্রতিদিনের ন্যায় তার ছাগল বাড়ির পাশের বিলে চড়াতে যায়। মঙ্গলবার বিকেলে আতেকা বিলের থাকা ছাগল নিতে গেলে সে আর বাড়ি ফিরে না।

পরে সন্ধ্যায় তার ছেলে ও তার স্বজনরা তাকে খুঁজতে বের হয়। বিভিন্ন জায়গায় খুঁজে না পেয়ে কারিগরপাড়া কমিউনিটি ক্লিনিকের পাশে পাট ক্ষেতে তার তার গলাকাটা লাশ দেখতে পেয়ে ছেলেসহ স্বজনরা চিৎকার দিলে আশেপাশের লোকজন পুলিশকে খবর দেয়।

খবর পেয়ে পুঠিয়া থানা পুলিশ মঙ্গলবার রাতে আতেকার লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। এলাকাবাসীর ধারণা আতেকাকে দুর্বৃত্তরা ধর্ষণ করে হত্যা করেছে।

এ ব্যাপারে পুঠিয়া থানার ওসি সোহরাওয়ার্দী হোসেন জানান, তার একটি হাত ও মাধায় গুরুতর আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। চারজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য বুধবার সকালে রামেক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি চলেছে।

Advertisement