বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রেমিকাকে একাধিকবার ধর্ষণ করেই ক্ষ্যান্ত হয়নি প্রেমিক আমিরুল। মোবাইলে ছবি-ভিডিও ধারণ করে দিনের পর দিন চলে ব্ল্যাকমেইল। শেষপর্যন্ত সেসব আপত্তিকর ছবি-ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে দিলো সে।

ঘটনাটি নেত্রকোনার মদন উপজেলার। ধর্ষণ-ব্ল্যাকমেইল ও ছবি-ভিডিও ছড়ানোর অভিযোগে আমিরুল মিয়াকে শুক্রবার গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গাজীপুরে জয়বাংলা এলাকা থেকে গ্রেফতারের পর ওইদিন বিকেলেই তাকে নেত্রকোনা আদালতে পাঠানো হয়েছে।

Advertisement

গ্রেফতারকৃত আমিরুল মিয়া নেত্রকোনার আটপাড়া উপজেলার তেলিগাতি ইউনিয়নের গৌরিনগর গ্রামের আনজু মিয়ার ছেলে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, আমিরুল মিয়ার মামার বাড়ি মদন উপজেলার জয়পাশা গ্রামে। ২০১৮ সালে বেড়াতে গিয়ে ওই কলেজছাত্রীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে সে। এরপর বিভিন্ন সময় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করে আমিরুল। সেসব দৃশ্য নিজের মোবাইলে ধারণ করে। এরপর আপত্তিকর সেসব ভিডিও ছড়ানোর হুমকি দিয়ে আরো কয়েকবার ধর্ষণ করে।

গত মাসে ফেসবুকে ছবি ও ভিডিও ছড়িয়ে দেয় আমিরুল। ওই ঘটনায় ২৫ জুন ধর্ষণের শিকার ছাত্রীর মা মদন থানায় মামলা করেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় গাজীপুর থেকে আমিরুলকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

মদন থানার ওসি ফেরদৌস আলম বলেন, ধর্ষণের শিকার কলেজছাত্রীর মায়ের করা মামলায় বখাটে আমিরুল মিয়াকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। আমিরুলের মোবাইল ও আপত্তিকর সেসব ছবি-ভিডিও উদ্ধার করা হয়েছে।

Advertisement