তালেবান যোদ্ধাদের সঙ্গে সংঘর্ষে আফগানিস্তানে সেনাবাহিনী বিশেষ ইউনিটের ২৩ সদস্য নিহত হয়েছে। বুধবার দেশটির উত্তরের ফারিয়াব প্রদেশে এই ঘটনা ঘটে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আফগান নিরাপত্তা বাহিনীর একজন সদস্য এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

আফগানিস্তানের স্থানীয় তোলো নিউজের খবরে বলা হয়েছে ‘দৌলত আবাদ’ জেলায় স্থানীয় সেনা এবং কমান্ডোরা পরিচ্ছন্নতা অভিযান (ক্লিনিং অপারেশন) শুরু করলে তালেবানের সঙ্গে সংঘর্ষ বেধে যায়। এতে অন্তত ২৩ কমান্ডো নিহত এবং ছয় পুলিশ সদস্য আহত হয়।  

Advertisement

সূত্র জানায়, সংঘর্ষের পর নিরপত্তা বাহিনী দৌলত আবাদ জেলা কেন্দ্র থেকে পিছু হটে ফারিয়াব প্রদেশের কারামকোল জেলায় অবস্থান নিয়েছে। প্রায় এক সপ্তাহ আগে ব্যাপক সংঘর্ষের পর দৌলত আবাদ জেলা কেন্দ্র তালেবান দখল করে নেয়।

তালেবানের সঙ্গে এই সংঘর্ষে যুক্তরাষ্ট্র এবং তুরস্কে প্রশিক্ষণ নেওয়া সোহরাব আজিমি নামে বিশেষ বাহিনীর একজন কর্মকর্তা নিহত হয়েছে। তিনি আফগানিস্তানের সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রীর মুখপাত্র অবসরপ্রাপ্ত জেনারেল জহির আজিমির ছেলে। জহির আজিমি তালেবানের সঙ্গে সংঘর্ষে তার ছেলের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, তার ছেলে শহীদ হওয়ায় তিনি গর্বিত। 

তিনি বলেন, তার ছেলে এবং তার সহকর্মীরা গর্ব এবং সাহসের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেছে। দেশ রক্ষায় তারা নিজেদের জীবন উৎসর্গ করেছে। 

আফগানিস্তানের স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, আফগান সরকারের সঙ্গে তালেবানের শান্তি প্রক্রিয়া স্থবির থাকার মধ্যে দেশটিতে সহিংসতা তীব্রতর রয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় আফগানিস্তানের অন্তত ৮০ টি জেলায় তালেবানের সঙ্গে সরকারি বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষ হয়েছে। এই সংঘর্ষে ১০০ তালেবান যোদ্ধা এবং ৯০ জনের বেশি আফগান বাহিনীর সদস্য নিহত হয়েছে। তবে তালেবান কিংবা সরকারি বাহিনীর পক্ষ থেকে হতাহতের সঠিক সংখ্যা প্রকাশ করা হয়নি।

জাতিসংঘের তথ্য বলছে, আফগানিস্তানের ৫০ থেকে ৭০ শতাংশ এলাকা এখন তালেবানের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

Advertisement