ঘটনাটি ঘটেছে জিম্বাবুয়ের বিঙ্গা জেলায়। এই রকম ঘটনা এর আগে কখনোই ঘটেনি। এক ব্যক্তি গরুর সঙ্গে অসভ্যতা করছিলেন। এমন সময় তার স্ত্রী সেখানে এসে উপস্থিত হোন। আর এতে সেই লম্পট ব্যক্তি ভ্যাবাচেকা খেয়ে যান। স্ত্রীকে কি বলবেন, তা সে বুঝে উঠতে পারছিল না। সে অতিরিক্ত লজ্জার মধ্যে পড়ে যায়। আর এক পর্যায়ে সে আত্মহত্যা করে।

বুলাউয়ায়ো টোয়েন্টিফোর সূত্রে জানা গেছে, ঐ ব্যক্তির নাম যোসেফ শুমা যে গরুর সাথে অসভ্যতা করেছিল। তার বয়স ছিল ৬১ বছর। সে ঘটনার দিন ভোর ৬ টার দিকে ঐ গরুটিকে দেখতে গিয়েছিল। আর সেই গরুটি আগে থেকে অসুস্থ ছিল। আর তখন সে গরুটির সাথে অসভ্যতা করতে শুরু করে। আর এমন সময় ঘটিনাস্তলে উপস্থিত হয় তার স্ত্রী সেঞ্জেনি সিবান্দা।

Advertisement

এ ব্যাপারে তার স্ত্রী সেঞ্জেনি সিবান্দাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে সে জানায়, সে ঘটনাস্থলে যেয়ে তার স্বামীকে এই রকম আপত্তিকর অবস্থায় দেখে ফেলে। আর তখন তার স্বামী খুব লজ্জিত হয়ে পড়ে। এবং সে বলে যে আত্মহত্যা করবে। তখন সিবান্দা তার স্বামীকে আত্মহত্যা করতে নিষেধ করে এবং সে এটাও বলে এই কথা সে কাউকে জানাবে না। কিন্তু এরপরেও তার স্বামী আত্মহত্যা করে।

এই ব্যাপারে স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা যায়, স্ত্রী যেমন স্বামীর কাণ্ড দেখে হতবাক। স্ত্রীর সামনে ধরা পড়ে গিয়ে বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েন শুমা। আর এরপর সে আত্মহত্যা করে। আর আত্মহত্যার পর স্বামীর মরদেহ প্রথম দেখে তার স্ত্রী সিবান্দা।

মাতাবেলেল্যান্ড নর্থ প্রভিন্সিয়াল পুলিশের মুখপাত্র ইন্সপেক্টর গ্লোরি বিন্দা বিষয়টি তদন্ত করে নিশ্চিত হয়ে স্থানীয় সাংবাদিকদের বলেন, মৃত ব্যক্তির নাম যোসেফ শুমা। সে গত ১৬ ফেব্রুয়ারি গলায় ফাস দিয়ে আত্মহত্যা করে।

সূত্র : বুলাউয়ায়ো টোয়েন্টিফোর

Advertisement