পেটের ভুড়ি বেড়ে যাওয়া সমস্যায় অনেকেই ভুগে থাকেন। অনেকে খাবার খাওয়া অনেক কম দেওয়ার পরেও দেখা যায় যে তাদের পেটের ভুড়ি কিছুতেই কমছে না। আবার অনেকের শুধু পেটেই বেশি চর্বি লাগে। দেখা যায় যে এই সকল লোকেরা যখন মোটা হতে থাকে তখন শুধু পেটের দিকেই মোটা বেশি হয়। মানুষের পেটে যখন এই চর্বি অনেক বেড়ে যায়, তখন ঐ মানুষটিকে দেখতে অনেক হাস্যকর দেখায়।

দেখে নিন কি কি কারণে পেটের ভুড়ি বাড়েঃ

১। অনিয়মতান্ত্রিক জীবনযাপন

২। ঘুমের ঘাটতি

৩। নিয়মিত ব্যায়াম না করা

৪। অতিরিক্ত মানসিক চাপ

৫। পানি কম খাওয়া

৬। চিনি জাতীয় খাবার বেশি খাওয়া।

৭। ভাজাপোড়া, ফাস্টফুড, জাংক ফুড জাতী খাবার বেশি খাওয়া।

৮। শাক সবজি ও ফলমূল কম খাওয়া।

৯। অতিরিক্ত ধুমপান করা।

১০। বংশগত কারণ।

পেটের ভুড়ি বেড়ে গেলে কি কি ক্ষতি হতে পারে দেখে নিনঃ

১। হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা বাড়ে।

২। রক্ত চাপ বেড়ে যায়।

৩। ডায়াবেটিস হওয়ার প্রবণতা বাড়ে।

৪। ব্রেস্ট ক্যান্সার ও কোলন ক্যান্সার হতে পারে।

৫। অ্যাজমা সমস্যা বেড়ে যায়।

৬। স্ট্রোকের ঝুকি বাড়ে।

কি কি উপায়ে পেটের ভুড়ি কমানো যায়ঃ

দেখে নিন কিছু সহজ উপায়ে খুব সহজেই পেটের ভুড়ি কমানো যায়-

১। প্রচুর পরিমাণ ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার খেতে হবে। ফ্লাক্স সীডস্‌, অ্যাভোকাডো, ব্ল্যাকবেরী, স্ট্রবেরী অতিরিক্ত ফাইবার থাকে এগুলো খাওয়া যেতে পারে।

২। দৈনিক ১ ঘন্টা করে হাঁটার অভ্যাস করতে হবে।

৩। মিষ্টি জাতীয় ও ফ্যাট জাতীয় খাবার, আটার তৈরি খাবার, ভাজাপোড়া খাবার কম খেতে হবে।

৪। কমল পানীয় খাওয়া থেকে দূরে থাকতে হবে ও ধুমপান ত্যাগ করতে হবে।

৫। প্রতিদিন ১৫ মিনিট কার্ডিও ড্যান্স করতে হবে ও ১৫ মিনিট পেটের ব্যায়াম করতে হবে।

৬। পর্যাপ্ত পরিমাণ দিনে ৮ ঘন্টা ঘুমাতে হবে।

৭। প্রতিদিন ১২ গ্লাস পানি খেতে হবে। কারণ পানি হজম প্রক্রিয়া ভাল করে।

৮। গরু ও খাসীর মাংস কম খেতে হবে।

৯। প্রতিদিন সবুজ শাকসবজি ও ফল খেতে হবে।

১০। প্রতিদিন গ্রীন টি খেতে হবে।

১১। রাত জাগার অভ্যাস ত্যাগ করতে হবে।

১২। রাতে ঘুমাতে যাবার ২ ঘন্টা আগে রাতের খাবার খেতে হবে।

পেটের ভুড়ি দ্রুত কমতে কিছু টিপসঃ

১। প্রতিদিন রাতে ঘুমানোর আগে ১ চামচ ভাজা তিসির গুড়া ১ গ্লাস পানি দিয়ে গুলে খেতে হবে।

২। প্রতিদিন সকালে খালি পেটে ১ গ্লাস পানিতে ১ চামচ আপেল সিডার ভিনেগার খেতে হবে।

৩। প্রতিদন খালি পেটে ১ টি পুরো লেবুর রস ১ গ্লাস পানির সাথে মিশিয়ে খেতে হবে।

উপরের সবগুলি নিয়ম মেনে চললে মাত্র ৩০ দিনে পেটের ভুড়ি কমে পেট একদম ফ্ল্যাট হয়ে যাবে।