সকল মানুষই ফর্সা হতে চায়। নিজের যে গায়ের রঙ আছে সেটি যেন আরো ফর্সা হয়ে সকলের কাছে গ্রহণযোগ্য তা সকলেই চায়। আর ৩ সহজ উপায়ে উজ্জ্বল, ফর্সা ও সুন্দর হওয়া সম্ভব।

এই উপায়গুলিতে তেমন কোন খরচ নেই । কারণ বাজারে যে ফর্সা হবার প্রডাক্ট গুলি পাওয়া যায়, তা বেশিরভাগই অনেক ব্যয়বহুল। আর প্রোডাক্ট গুলি সবার ত্বকে কাজ করে না। আর এগুলোতে অনেক ক্যালিকেল থাকায় তার প্রচুর সাইড এফেক্ট হয়ে থাকে। আর তাই কোন প্রকার সাইড এফেক্ট ছাড়া কম খরচে ঘরোয়া ৩ টি সহজ ফর্সা হাবার উপায় দেখুন। প্রতিটি উপায়তেই আপনার ত্বক প্রথমে ক্লিনজার করতে হবে। এরপর ফেসপ্যাক লাগাতে হবে।

উপায়ঃ১ কাচা দুধের ব্যবহার

ক্লিনজিংঃ একটি পাত্রে ৩ চামচ কাচা দুধ, ১/২ চামচ লবণ, , ১ চিমটি হলুদের গুড়া ভালভাবে মিশিয়ে সেই মিশ্রণটি একটি তুলা বা ব্রাশের সাহায্যে সমস্ত ত্বকে ভালভাবে লাগাতে হবে। এরপর ১ মিনিট পরএকটি টিস্যুর সাহায্যে ত্বক থেকে সেই উপাদান গুলি ভালভাবে মুছে ক্লিনজিং এর কাজ সম্পন্ন করতে হবে।

ফেসপ্যাকঃ ক্লিনজিং এর পর ২ চামচ চালের গুড়া, ২ চামচ কাচা দুধ, ১ চামচ মধু ভালভাবে মিশিয়ে এই উপাদানটি ত্বকে ভালভাবে লাগিয়ে রাখতে হবে ১৫-২০ মিনিট। এরপর নরমাল পানি দিয়ে ত্বক ধুয়ে ফেলতে হবে। এভাবে সপ্তাহে ২ দিন করলে ত্বক কয়েক শেড ফর্সা হতে শুরু করবে। কারণ এই উপাদানগুলি ত্বকে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন ও মিনারেল যোগান দিয়ে ত্বককে অনেক ফর্সা, উজ্জ্বল ও আকর্ষণীয় করে তুলবে।

উপায়ঃ২ কফির ব্যবহার

কফিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ অ্যান্টি অক্সিডেন্ট যা ত্বককে বিভিন্ন ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করে। আর কফিতে থাকা ক্যাফেইন ত্বকের ব্লাড সার্কুলেশন অনেক গূন বাড়িয়ে দেয়। যা ত্বককে দ্রুত ফর্সা করতে সাহায্য করে। এছাড়া কফি ময়েশ্চারিজার ও অ্যান্টি এজিং হিসেবেও ব্যবহার করা হয়ে থাকে। কফি সূর্যের অতি বেগুনী রশ্মির জন্য ক্ষতিগ্রস্থ হওয়া ত্বককে ঠিক করে। এছাড়া এটি ত্বকের কালো দাগ দূর করে ত্বকের উজ্জ্বলত
৩-৫ গুণ পর্যন্ত বাড়িয়ে দেয়। যা আমরা অনেকেই জানি না। ত্বক ফর্সা করতে কফির সঠিক ব্যবহারঃ

ক্লিনজিংঃ ১ চামচ কফি পাউডার, ১ চামচ চিনি ভালভাবে মিশিয়ে এর সাথে ১ চামচ অলিভ ওয়েল ভালভাবে মিশিয়ে মিশ্রণটি ২ মিনিট ধরে ভালভাবে ত্বকে মাখতে হবে। এরপর ঠান্ডা পানি দিয়ে ত্বক ধুয়ে ক্লিনজিং এর কাজ সম্পন্ন করতে হবে।

ফেসপ্যাকঃ ১ চামচ চালের গুড়া, ১/২ চামচ মধু, ১ চামচ কফি পাউডার, ২-৩ চামচ টক দই সবগুলো উপাদান ভালভাবে মিশিয়ে মিশ্রণটি ভাল করে মুখে লাগিয়ে রাখতে হবে। এরপর ২০-২৫ মিনিট পর ত্বক নরমাল পানিতে
ধুয়ে ত্বকে যেকোন ময়েশ্চারাইজার মাখতে হবে। এভাবে সপ্তাহে ২ দিন করলে ত্বক হয়ে উঠবে ফর্সা ও সুন্দর।

উপায়ঃ৩ মুলতানী মাটির ব্যবহার

ক্লিনজিংঃ একটি লেবু কেটে সেখান থেকে ১/২ চামচ রসের সাথে ১ চামচ টক দই মিশিয়ে মিক্সড করে মিশণটি একটি লেবুর স্লাইস করা অংশে লাগিয়ে তকে হালকা করে ঘষে ঘষে লাগাতে হবে।এরপর ১৫ মিনিট পর নরমাল পানি দিয়ে ত্বক ধুয়ে ফেলতে হবে। টক দইয়ে আছে ভিতামিন বি, বি৫ ও ল্যাক্টিক এসিড যা ত্বককে ময়েশ্চাইজিং করতে সাহায্য করে ও ত্বককে উজ্জ্বল ও স্বাস্থ্যবান করে তোলে। আর লেবুতে থাকা ভিটামিন সি ও অ্যান্টি অক্সিডন্ট ত্বককে উজ্জ্বল করার সাথে সাথে ত্বকের সকল দাগ দূর করে দেয়।

ফেসপ্যাকঃ মুলতানীর মাটির রেডিমেট ফেসপ্যাক বাজার থেকে কিনে এনে সেটি ত্বকে ভালভাবে মেখে নিয়ে হবে। এরপর সেটি ১৫-২০ মিনিট পর নরমাল পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। এভাবে এটি সপ্তাহে ৩ দিন ব্যবহারে ত্বক হয়ে উঠবে
লাবন্যময়ী ফার্সা। মুলতানী মাটি ত্বকের ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া গুলিকে মেরে ফেলে। আর এটি ত্বকের অতিরিক্ত ময়লাভাব ও তেল দূর করে ত্বককে ক্লিন ও কমল করে তোলে। এছাড়া মুলতানী মাটিতে থাকা মিনারেল ত্বকের সানটানকে দূর করে ত্বককে অনেক ফর্সা করে তোলে।