আমরা অনেকেই মাছ খাওয়ার সময় অসাবধানবশত, মাছের কাটা গলায় আটকিয়ে যায়। যা আর সহজে গলা থেকে নামে না। এতে করে তখন ঐ অংশটি ফুলে যায় বা অনেক অস্বস্থিবোধ হয়। দেখা যায় ঐ সময় আমরা অনেক কিংবা ভাত খাওয়ার পরেও সেই কাটা আর গলা থেকে নামতে চায় না। তবে এর অনেক সমাধান আছে। যা এখন আমরা জানব।

কি কি লক্ষণে বুঝব যে গলায় মাছের কাটা আটকিয়ে গেছেঃ

যখন গলায় মাছের কাটা আটকাবে তখন গলায় কাশির অনুভব হবে, ফলায় খস খস করে, অনেক সময় খুব ব্যাথা হবে, এছাড়া কাটা অনেক ধারালো হলে ঐ স্থান থেকে রক্ত ঝরতে পারে। অবস্থা খুব খারাপ হলে ডাক্তারের কাছে যাওয়া সবথেকে ভাল হবে। কারণ এখান থেকে গলায় ইনফেকশন হয়ে যাতে পারে। তবে ডাক্তারের কাছে যাওয়ার পূর্বে কিছু ঘরোয়া উপায়ে এই কাটা নামানো সম্ভব।

দেখে নিন কি কি উপায়ে ঘরোয়া পদ্ধতিতে গলা থেকে মাছের কাটা নামানো যায়ঃ

১। যে জায়গায় কাটা বিধে আছে, এই জায়গায় লেবুর রস চিপে চিপে দিতে থাকুন, এতে করে ঐ স্থানটি অনেক নরম হয়ে মাছের কাটাটি নেমে যেতে পারে। এভাবে চেষ্টা করতে থাকুন।

২। কাটার ঐ স্থানে ২-৩ চামচ অলিভ ওয়েল দিতে থাকেন, ওখানে নরম হয়ে কাটা নেমে যাবে।

৩। কলা অনেকে সময় কাটা নামাতে সাহায্য করে। কলা অনেকে বড় করে কামড়িয়ে খেতে থাকুন, কাটা চলে যাবে।

৪। এক টুকরা পাউরুটি ১ মিনিট ধরে পানিতে ভিজিয়ে রেখে সেটি বড় করে কামড়িয়ে খেয়ে ফেলুন। খেয়াল রাখুন, যাতে সেই কাটার জায়গায় জোরে চাপ লাগে। এতে করে কাটা নেমে যেতে পারে।

৫। ২ চামচ আপেল সিডার ভিনেগার ১ কাপ পানিতে নিয়ে সেটি খেয়ে ফেলুন। ভিনেগারে রয়েছে এসিডিক। এটি সহজেই গলার ভিতরের অংশ নরম করতে পারে। যার ফলে সহজেই মাছের কাটা গলা থেকে নেমে যাবে।

আপেল সিডার ভিনেগার

উপরের নিয়মগুলি অনুসরণ করুন। যেকোন একটিতে গলা থেকে মাছের কাটা নেমে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে। তবে এগুলিতে কাজ না হলে দ্রুত ডাক্তারের কাছে যাওয়া বুদ্ধিমানের কাজ হবে।