আমরা সকলেই প্রতিদিন চা খেতে ভালবাসি। সকাল বেলা ঘুম থেকে উঠে এক কাপ চা না হলে যেন আমাদের চলেই না। আবার কাজের ফাঁকে ফাঁকে চা তো আমাদের খুব প্রয়োজন। কিন্তু এই চা এর মধ্যে সবচেয়ে উপকারি চা হল গ্রীন টি বা সবুজ চা। এই চায়ের উপকারিতার কথা বলে শেষ করা সম্ভব না। কিন্তু আমরা এই চা এর থেকে সাধারণ চা বেশি খেয়ে থাকি। অনেকে আবার এই গ্রীন টি এর নামই শোনেন নি। সাধারণ চা যদি আমরা দুধ দিয়ে খাই, তাতে আমাদের গ্রাস্টিকের সমস্যা সহ নানা সমস্যা হতে পারে। আমার যদি আমরা সাধারন চা বা কফি এমনি দুধ ছাড়াও দিনে ৩-৪ বার খাই, সেক্ষেত্রে অতিরিক্ত চা গ্রহণ আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য খুব একটা ভাল হয়না। কারণ তাতে ক্যাফেইনের পরিমাণটা অনেক বেশি থাকে। যার ফলে আমাদের সকলের গ্রীন টি বা সবুজ চা খাওয়া উচিত। গ্রীন টি খেলে কি কি উপকার হয় দেখুন-

গ্রীন টিতে এমন সকল উপাদান থাকে, যা পান করার ফলে আমাদের মুখের ব্যাকটেরিয়া দুর করে। এই ব্যাকটেরিয়াগুলি আমাদের মুখ থেকে পেটে গেলে অনেক সমস্যা হবার সম্ভাবনা থাকে। কিন্তু গ্রীন টি পান করার ফলে এই ব্যাকটেরিয়া গুলি দূর হয়।

গ্রীন টিতে রয়েছে মিনারেল, এন্টি অক্সিডেন্ট ও বিভিন্ন বায়ো একটিভ কম্পাউন্ড, যা আমাদের শরীরে ক্যান্সারের প্রতিরোধ হিসেবে কাজ করে।

গ্রীন টিতে ক্যাফেইনের পরিমাণ কম থাকে। আর এমিনো এসিড এলথিয়ানিন থাকে, যা আমাদের ব্রেনের ফাংশনকে উন্নত করে। আর আমাদের মস্তিস্ককে তীক্ষ্ণ করে।

নিয়িমিত গ্রীন টি পান করলে তা আমাদের ওজন নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। কারণ গ্রীন টির মেটাবলিজম বুস্ট করার ক্ষমতা আছে।

গ্রীন টি আমাদের শরীরের রক্তের কোলেস্টরেলের পরিমাণ ঠিক রাখে, এছাড়া এটি ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ রাখে, ব্লাড সুগারের লেভেল ঠিক রাখে। এছাড়া নিয়মিত গ্রীন টি পান করলে হার্ট এ্যাটাকের সম্ভাবনা একদমই কমে যায়।

তাই আমাদের প্রত্যেকেরই সকাল ও সন্ধ্যায় দুই বেলা নিয়মিত গ্রীন টি পান করা উচিত।