আমরা সচরাচর অনেক মানুষই হার্টের সমস্যায় ভুগে থাকি। এদের মধ্যে আবার অনেকেই হঠাৎ হার্ট অ্যাটাকে আক্রান্ত হই ও দুর্ভাগ্য বশত অনেকেই মৃত্যু বরণ করি। বিশেষ করে যাদের উচ্চ ডায়াবেটক্স এর সমস্যা, রক্তে কোলেস্ট্রলের আধিক্যতা, উচ্চ রক্তচাপ এই ধরনের রোগীরা হঠাৎ হার্ট অ্যাটাকে মারা যেতে পারে। তাই হার্ট অ্যাটাকের আগে শরীরে কি কি লক্ষণ দেখা দেয়, তা জানা জরুরী। এতে আমরা সহজেই সাবধান হতে পারি ও ডাক্তারের কাছে যেয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা আগে থেকেই নিতে পারি।

দেখে নিন কি কি লক্ষণ দেখে বুঝব আমাদের হার্ট অ্যাটাক হওয়ার সম্ভাবনা আছে কিনাঃ

Advertisement

বুকে অস্বস্তিঃ

এটা হার্ট অ্যাটাক হওয়ার অন্যতম লক্ষণ। এক্ষত্রে আপনার বুকে প্রচন্ড ব্যাথা অনুভূত হতে থাকবে। এছাড়া বুকে টান বা চাপ অনুভব করতে পারেন। এমন সমস্যা দেখে দিলে আপনার উচিত অতি দ্রুত ডাক্তারের শরণাপন্ন হওয়া।

পেটে ব্যথা, বমি বমি ভাব, মুখে টক উঠা, বদ হজম হওয়াঃ

এই সমস্যাগুলি একসাথে হলে বুঝতে হবে আপনার হার্টের সমস্যা থেকে হার্ট অ্যাটাক হতে পারে। এক্ষেত্রে বমি বমি ভাবের সাথে বমিও হয়ে যেতে পারে।

অনিয়মিত হৃদস্পন্দনঃ

অনেক টেনশন বা দুশ্চিন্তা থেকে আপনার হৃদস্পন্দন অনেকে বেড়ে যেতে পারে। এটাও হার্ট অ্যাটাকের পূর্ব লক্ষণ। তবে এরকম সমস্যা কম ঘুম ও অধিক চা কফি খাওয়ার ফলেও হতে পারে। তাই এই রকম সমস্যায় অস্বস্থি বোধ করলে দ্রুত ডাক্তার দেখানো উচিত।

পায়ের গোড়ালি ফুলে যাওয়াঃ

পা ও পায়ের গোড়ালি ফুলে যাওয়াও হার্ট অ্যাটাকের অন্যতম লক্ষণ হতে। মানুষের প্রতিটি অঙ্গ একে অপরের সহয়তায় চালিত হয়। ঠিক তেমনি যখন হৃদপিন্ডের পাম্প যখন কমে যায় তখন রক্ত শিরা জমে ফোলাভাব তৈরি হয়। আবার হার্টের সমস্যায় কিডনীর কাজও অনেক কঠিন হয়ে ফোলাভাব শুরু করে দেয়।

অতিরিক্ত ঘেমে যাওয়াঃ

হঠাৎ যদি দেখেন আপনি অতিরিক্ত ঘামা শুরু করেছেন, কিন্তু কোন কারণ খুঁজে পাচ্ছেন, এটাও তবে হার্ট অ্যাটাকের পূর্বাভাস। এরকম হলেও দ্রুত ডাক্তারের শরণাপন্ন হোন।

পুরানো কাশি যা সহজে ভাল হয়নাঃ

বেশ কয়েকদিন ধরে যদি দেখেন আপনার কাশি হচ্ছে, নানা ধরনের ওষধেও কাজ হচ্ছেনা, তবে বুঝতে হবে আপনার কোন জটিল সমস্যা হতে যাচ্ছে। হার্টে সমস্যা থেকে এরকম হলে বুঝতে হবে যে আপনার রক্ত হার্ট ফেইলারের কারণে ফুস্ফুসেই ফিরে আসছে। যার ফলে এই রকম একটি কাশির উদ্রেক করে। তাই এ রকম অনেক পুরানো কাশি থাকলে ডাক্তার দেখানো আবশ্যক।

নাক ডাকাঃ

যেকোন মানুষই স্লিপ আপিনিয়াতে ভুগতে পারেন। এক্ষেত্রে মানুষ স্বাভাবিকের থেকে অনেক বেশি জোরে নাক ডেকে থাকে। যা মোটেও কোন ভাল বিষয় নয়। এই সমস্যা থেকে হার্ট অ্যাটাক পর্যন্ত হতে পারে। তাই ডাক্তার দেখিয়ে এই সমস্যা ঠিক করা প্রয়োজন।

এছাড়া হার্ট অ্যাটাকের পূর্ব লক্ষণগুলি হলঃ

১. সহজেই ক্লান্ত হয়ে পড়া।
২. গলা বা চোয়ালে অতিরিক্ত ব্যাথা অনুভব করা।
৩. আপনি মাথা ঘোরা বা হালকা মাথা অনুভব করছেন।
৪. শরীরের বাম দিকের বাহুতে ব্যাথা অনুভব করা।

Advertisement