ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইটকে সঠিকভাবে এসিও করতে ভূমিকা পালন করে থাকে বিভিন্ন এসিও প্লাগিন। যেগুলোর মধ্যে অধিকাংশই ফ্রিতে পাওয়া যায়। আর এই সকল প্লাগিন্সের ফ্রী ভার্সন এই মোটামুটি সব অপশনই থাকে। তবে এই সকল প্লাগিন্সের পেইড ভার্সনও রয়েছে। যাই হোক ওয়ার্ডপ্রেসের এসইও প্লাগিন এর মধ্যে সবথেকে ভালো তিনটি এস ই ও প্লাগিন হল-

১. All in one Seo pack

২. Yoast Seo

৩. Rank Math

All in one seo Pack

এই প্লাগিন ওয়াডপ্রেসের খুবই জনপ্রিয় একটি এসইও প্লাগিন। এই প্লাগিন দিয়ে খুবই সহজে একটি ওয়ার্ডপ্রেসের ওয়েবসাইটি কে রেংক করানো যায়। yoast seo প্লাগিন আসার পূর্বে এই প্লাগিন ওয়ার্ডপ্রেস এর মধ্যে এককছত্র ভাবে ভালো ছিল। এখন আমরা দেখব কিভাবে অল ইন ওয়ান এসিও প্লাগিন সেটাপ করতে হয়। 

১. প্রথমে প্লাগিনটি ইন্সটল করে নিতে হবে। এরপর সেটি একটিভ করতে হবে। একটিভ করার পর সেটিংসে ক্লিক করতে হবে।

২. এরপর Launch the setup এই বাটনে ক্লিক করতে হবে।  এখান থেকে ওয়েবসাইটের টাইটেল, description সহ অন্যান্য সকল ফাংশন যোগ করে নিতে হবে। এরপর save বাটনে ক্লিক করতে হবে।

৩. এরপর General setting থেকে webmaster tools থেকে সাইটম্যাপের সকল meta tag ভেরিফাই করে নিতে হবে।

৪. এবারে আপনি আপনার প্রতিটি পেজ এবং পোস্টে সঠিকভাবে এই প্লাগিন্স এর মাধ্যমে এসইও করতে পারবেন। এর জন্য আপনাকে আপনার পেজ পোস্ট বা ক্যাটাগরির এডিটর যেতে হবে। এডিটর থেকে খুব সহজে আপনারা আপনার এই প্লাগিন্সের মাধ্যমে টাইটেল, মেটা ডেসক্রিপশন এবং ফোকাস কিওয়ার্ড লাগাতে পারবেন এছাড়া আপনাকে পোষ্ট ব্লগ দেয়ার সময় বা লেখার সময় খেয়াল রাখতে হবে। যাতে করে সেটিতে পর্যাপ্ত পরিমান কিওয়ার্ড থাকে এবং আপনাকে এর মাধ্যমেই আপনার ব্লগ আর্টিকেল বা কন্টেন্ট লিখতে হবে এবং মিনিমাম কন্টেন্ট ৫০০ ওয়ার্ডের মধ্যে রাখতে হবে। আপনি এখানকার page analysis থেকে বেসিক এসিও টাইটেল এবং দেখতে পাবেন। সেখানে আপনার এই ব্লগটি উন্নত করার জন্য কি কি করতে হবে তার সকল সাজেশন দেয়া থাকবে। সেই সাজেশন অনুযায়ী আপনাকে আপনার ব্লগটি লিখতে হবে। এভাবে আপনি All in one seo এর মাধ্যমে সুন্দরভাবে একটি ওয়েবসাইটকে এসইও করে রেংক করাতে পারবেন।

Yoast Seo

এই প্লাগিনটি ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইটের সবথেকে জনপ্রিয় এসিও প্লাগিন। এই প্লাগিন সবথেকে বেশি ইন্সটল হয়েছে। 

১. প্রথমে এই প্ল্যাগিন টি ইন্সটল করে নিতে হবে। ইনস্টল করার পর ফার্স্ট টাইম কনফিগারেশন এই বাটনে ক্লিক করতে হবে। এখান থেকে সাইড ডাটা অপটিমাইজেশনে পুরা সাইট থেকে অপটিমাইজ করতে হবে। এরপর কন্টিনিউ বাটনে ক্লিক করতে হবে।

২. এরপর search appearance থেকে ওয়েবসাইটটি বিজনেস না পারসোনাল সেটা সেট করতে হবে। ওয়েবসাইটের নাম দিতে হবে। ওয়েবসাইটের লোগো দিতে হবে। তারপর কন্টিনিউ বাটনে ক্লিক করতে হবে।   

৩. তারপর আপনার ওয়েবসাইটের সকল সোশ্যাল প্রোফাইল লাগাতে হবে।

৪. এবার পূর্বের মতো পোস্ট, পেজ এবং ক্যাটাগরির এসিওর জন্য সেই সমস্ত পেজ বা পোস্টে ক্লিক করতে হবে। ওখান থেকে এডিট বাটনে ক্লিক করতে হবে। এডিট বাটনে ক্লিক করার পর টাইটেল, মেটা ডেসক্রিপশন দিতে হবে এবং ট্যাগ দিতে হবে। একটি ফোকাস কিওয়ার্ড দিতে হবে। সে কিওয়ার্ড অনুযায়ী লিংক হতে হবে। ৪০ থেকে ৫০ পর্যন্ত পরিমাণ কন্টেন্ট থাকতে হবে এবং সে কন্টেন্টের পর্যাপ্ত পরিমাণ কিওয়ার্ড থাকতে হবে। এবার নিচে এনালাইসিস অপশন থেকে যে যেটা প্রবলেম আছে সেই প্রবলেম গুলো লাল হয়ে থাকবে। সেগুলো সব সবুজ করতে হবে এবং প্রতিটি প্রবলেম এখান থেকে সলভ করতে হবে। রিডিবিলিটি অপশন থেকেও সব ধরনের প্রবলেম সলভ করতে হবে।  স্কিমা এবং সোশ্যাল অপশন থেকে আপনারা সেখানকার বিভিন্ন অপশন সেট করতে পারবেন। এভাবেই খুব সহজেই yoast seo প্লাগিন্সের মাধ্যমে একটি সাইটকে এসিও করা।

Rank Math

বর্তমানে Rank math প্লাগিনটি খুব জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। বিশেষ করে এই প্লাগিনটিতে ফ্রি ভার্সনে অনেক বেশি পরিমাণ ফিচার দেওয়া আছে। যার ফলে এই প্লাগিনটি কম সময়ে খুবই জনপ্রিয়তা অর্জন করে ফেলেছে। 

সেটিং করার জন্য প্রথমে প্লাগিনট ইন্সটল করতে হবে।

ইন্সটল করার পর একটিভ বাটনে ক্লিক করে একটিভ করে নিতে হবে।

এবারের সেটিং অপশন এ ক্লিক করতে হবে। প্রথমে এর ড্যাশবোর্ড থেকে এর প্রয়োজনীয় অপশন গুলো অন করে নিতে হবে। যেমন এসিও এনালাইসিস ম্যানেজার লিংক কাউন্টার, লোকাল এসিও এগুলো সব অন করে নিতে হবে।

এরপর এর অ্যানালাইটিক বাটনে ওয়েবসাইটের সকল তথ্য এবং সকল এসেও দেখার জন্য যে কোন একটি ফ্রি একাউন্ট খুলে এ রেংক ম্যাথের সাথে কানেক্ট করা যাবে।

এই প্লাগিনের মাধ্যমে রিডাইরেকশন ও গুগল সাইটম্যাপ ভেরিফিকেশন করা যায়।

এই প্লাগিনের লোকাল এসিও একদম ফ্রি।

এই প্লাগিন দিয়ে আগের প্লাগিনের মত করে post, page, category অপশনে খুব ভাল করে seo করা যায়। কারণ এই প্লাগিনেও সাজেশন দেওয়া হয়।