ইমেইল মার্কেটিং বলতে বোঝায় আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইটের কোন ব্লগ আর্টিকেল বা কোন প্রোডাক্ট বিক্রি করার জন্য ইমেইলের মাধ্যমে কোন মানুষের কাছে পৌঁছানো। অর্থাৎ আপনার প্রোডাক্টের প্রমোশন করা ইমেইলের মাধ্যমে এবং কাস্টমারের কাছে আপনার প্রোডাক্ট সম্বন্ধে জানানো। ইমেইলের মাধ্যমে করা এই প্রক্রিয়াকেই ইমেইল মার্কেটিং বলে। আর বিভিন্ন প্রোভাইডার রয়েছে যারা এই ইমেইল মার্কেটিংয়ের জন্য সাহায্য করে থাকে। এদের মধ্যে Mailchimp হলে অন্যতম। আপনি চাইলে অনেক ইমেইল এড্রেস সংগ্রহ করে আপনি গুগল এর gmail থেকে একসাথে সকলকে ইমেইল পাঠাতে পারেন। কিন্তু সে ক্ষেত্রে আপনার সেই ইমেইলটি স্প্যাম ফোল্ডারে যাওয়ার সম্ভাবনা ১০০% থাকে। কারণ গুগল তখন এটিকে একটি স্প্যাম হিসেবে মনে করে। এর কারণ এটি কোন অথরাইজড বা কোন কোম্পানি থেকে প্রদান করা হয়নি বলে গুগল সেটিং মনে করে। মোটকথা Google এটি মনে করে যেটি কোন মানুষ হয়তো ইমেইল করছে না। এটি মনে হয় কোন রোবটের মাধ্যমে ইমেইল গুলো পাঠানো হচ্ছে। যার ফলে এই সমস্যা সমাধানের জন্য একটি ইমেইল প্ল্যাটফর্ম বা ইমেইল মার্কেটিং প্ল্যাটফর্মের প্রয়োজন হয়। আর সেই প্ল্যাটফর্মটির মধ্যে সবথেকে ভালো প্ল্যাটফর্ম Mailchimp.

কিভাবে mailchimp এ একাউন্ট খুলতে হয়

১. প্রথমে Mailchimp ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। এরপর সাইন আপ ফর ফ্রি এই বাটনে ক্লিক করতে হবে।

২. এরপর আপনার ইমেইল ইউজারনেম পাসওয়ার্ড দিয়ে sign up বাটনে ক্লিক করতে হবে। এরপর আপনার ইমেইলে একটি কোড যাবে বা একটিভেট অ্যাকাউন্ট নামে একটি link ইমেইলে যাবে। সে বাটনে ক্লিক করতে হবে। ক্লিক করে অ্যাকাউন্টটি এক্টিভ করে নিতে হবে।

৩. এরপর প্রথমত আপনাকে কয়েকটি প্ল্যান দেখাবে। এখান থেকে ফ্রি প্লানে ক্লিক দিয়ে নেক্সট বাটনে ক্লিক করতে হবে। 

৪. এরপর আপনার কাছ থেকে mailchimp কিছু ইনফরমেশন নেবে। যেমন- নাম, বিজনেস নাম এবং ফোন নাম্বার এগুলো সব দেয়া হয়ে গেলে next বাটনে ক্লিক করতে হবে। এরপর Address 1, Address 2, City ইত্যাদি দিয়ে next বাটনে ক্লিক করতে হবে। 

৫. এরপর আরো অনেক অপশন আসবে। সকল কিছু পূরণ করে ওয়েবসাইটের লিংক দিয়ে next বাটনে ক্লিক করে অ্যাকাউন্ট তৈরি করে নিতে হবে। 

৬. এরপর mailchimp এর ড্যাশবোর্ড দেখাবে। সেখানে create, campaigns, audience, automations, website, intregation এই অপশনগুলি দেখাবে। 

৭. প্রথমত আপনাকে Audience থেকে All contracts বাটনে ক্লিক করতে হবে। এখান থেকে Add contracts বাটনের মাধ্যমে subscriber যোগ করা যাবে। আপনার কাছে যদি ইমেইল লিস্ট থাকে তাহলে আপনি আপনার ইমেইলগুলে subscriber হিসেবে যোগ করতে পারবেন। এছাড়া আপনি ওয়ার্ডপ্রেসের ওয়েবসাইটের email subscriber plugin এর মাধ্যমে subscriber যোগ করতে পারবেন। ফ্রি অ্যাকাউন্টে ২০০০ টি subscriber যোগ করা যাবে। subscriber হল এই ইমেইল অ্যাড্রেসের মালিক। অর্থাৎ আপনি যাদেরকে ইমেইল পাঠাবেন।

কিভাবে email address সংগ্রহ করতে হয়

১. আপনি আপনার ওয়েবসাইটে একটি ইমেইল ফর্ম বানিয়ে সেখান থেকে কাস্টমারদেরকে সাবস্ক্রাইবের মাধ্যমে ইমেইলের একটি সংগ্রহ করতে পারেন। সেক্ষেত্রে আপনি আপনার প্রোডাক্ট এর কিছু ফ্রি স্যাম্পল দেওয়ার জন্য বা কোন কিছু ফ্রিতে দেওয়ার জন্য আপনার কাস্টমার যেন সেখানে তাদের ইমেইল এড্রেসটি প্রোভাইড করে সেটার একটি ব্যবস্থা করতে হবে। এতে করে কাস্টমাররা ফ্রিতে আপনার ইমেইল subscription form এর মাধ্যমে ইমেইল লিস্ট আপনাকে দিবে। এভাবে আপনি খুব সহজেই অনেক ইমেইল সংগ্রহ করে ফেলতে পারবেন। এই কাজটি আপনি ওয়ার্ডপ্রেসের প্লাগিন দিয়ে করতে পারবেন।

২.  এছাড়া আপনি চাইলে আপনার প্রয়োজনীয় email বিভিন্ন কোম্পানি থেকে কিনেও নিতে পারবেন। 

৩. এছাড়া আপনি যদি মনে করেন আপনি আপনার ওয়েবসাইটটিকে Google Ads অথবা Facebook Ads এ প্রমোশন করাবেন। সেক্ষেত্রে আপনি অনেক বেশি ইমেইল সংগ্রহ করে নিতে পারবেন। এভাবে আপনি খুব সহজে ইমেইল সংগ্রহ করে নিতে পারবেন এবং ইমেইল সংগ্রহ করে mailchimp এ যুক্ত করতে পারবেন।

Mailchimp দিয়ে কিভাবে সংগ্রহকৃত ইমেইল অ্যাড্রেসে বাল্ক ইমেইল পাঠানো হয়

এর জন্য mailchimp এর ড্যাশবোর্ড থেকে প্রথমে create বাটনে ক্লিক করতে হবে। এরপর ইমেইল অপশনে ক্লিক করে Regular বাটনে ক্লিক করতে হবে। এরপর আপনার একটি ক্যাম্পেইনের নাম লিখতে হবে। এরপর Begin বাটনে ক্লিক করতে হবে। এরপর content থেকে Design email থেকে খুবই মিনিমাল ভাবে একটি ইমেইল টেমপ্লেট তৈরি করতে হবে। যেখানে ফুটারে অবশ্যই unsubscribe বাটন থাকতে হবে। এরপর send বাটনে ক্লিক করে এক ক্লিকে সব email পাঠিয়ে দিতে হবে।

আপনার কয়টি কাস্টমার বা গ্রাহক ইমেইলটি পেয়েছে, কত জন ইমেইলটি পায়নি, কতজন ইমেইলটি দেখেছে আর কতজন ইমেইলটি skip করেছে, এ সকল কিছু জানার জন্য আপনাকে All Campaigns বাটনে ক্লিক করে দেখে নিতে পারবেন।

Mailchimp দিয়ে পাঠানো email সেন spam ফোল্ডারে না যায় যেজন্য যে বিষয়গুলি খেয়াল করতে হবে-

১. আপনার Mailchimp এর ইমেইলটি অবশ্যই একটি প্রিমিয়াম ইমেইল হতে হবে। যেমন- info@demo.com.  যেটাতে ডোমেইনের নাম উল্লেখ থাকবে। তবে ইমেইলের নাম কোন ভাবেই sales@demo.com  হওয়া যাবে না এবং আপনার ডোমেনটি ভেরিফাই করতে হবে। mailchimp দ্বারা ডোমেইন ভেরিফাই করার জন্য আপনাকে website থেকে Domains বাটনে ক্লিক করতে হবে। এখানে আপনি আপনার ডোমেনটি দেখতে পাবেন। সেই ডোমেইনটিকে আপনি ভেরিফাই করার জন্য ভেরিফাই বাটনে ক্লিক করে অথেন্টিকেট করতে হবে। অথেন্টিকেট করার জন্য আপনার ডোমেইনের নেম সার্ভারে এখানে দেওয়া টেক্সট ফাইল গুলো এড করে দিতে হবে।

২. আপনার ইমেইলটি অতিরিক্ত প্রমোশনাল হওয়া যাবে না।  যেমন free offer, Buy now, Get now , Lottery, Free Free এই ধরনের শব্দ ব্যবহার করা যাবে না। 

৩. আপনার ইমেইলের লেখাটা অনেক স্পষ্ট হতে হবে। যাতে করে কাস্টমার খুব সহজে পড়তে পারে। আপনার ইমেল লেখা খুব বেশি বড় হওয়া যাবে না। ইমেইলের লেখাটি মিডিয়াম হতে হবে। 

৪. ইমেইলে অতিরিক্ত লিংক দেয়া যাবে না। 

৫. ইমেইলে অতিরিক্ত ফোন নাম্বার দেয়া যাবে না।

৬. ইমেইলে অবশ্যই আনসাবস্ক্রাইব বাটন থাকতে হবে।

৭. ইমেইলের ব্যাকগ্রাউন্ড ইমেজটা অতিরিক্ত চকচকা হওয়া যাবে না।

এই বিষয়গুলো খেয়াল রাখলে একটি ইমেইল কখনোই স্প্যাম ফোল্ডারে যাবে না।

ইমেইল সাপসক্রিপশন প্লাগিন এর মাধ্যমে ওয়ার্ডপ্রেসের ইউজারকে mailchimp লিস্টে সেট করা

এজন্য ওয়ার্ডপ্রেসে Email Subscribers Plugin নামের প্লাগইন ইন্সটল করতে হবে। এরপর সেখান থেকে mailchimp সিলেক্ট করতে হবে। সিলেক্ট করার পর সেখানে mailchimp এর api key লাগাতে হবে। Mail chimp এর api key পাওয়ার জন্য ড্যাশবোর্ড থেকে একাউন্ট অপশনে যেতে হবে এবং সেখানে এক্সট্রা অপশন থেকে কি বাটনে ক্লিক করতে হবে। ক্লিক করার পর create key বাটনে ক্লিক করে key তৈরি করে নিতে হবে। এই key প্লাগিনে সেট করে দিলে  ইমেইল সাবস্ক্রাইবার তৈরি হয়ে যাবে। যেখানে ইমেইল দিয়ে subscribe বাটন থাকবে। এতে করে যখন ইমেইল সাবস্ক্রাইব করবে। তখন সেটি অটোমেটিক্যালি ভাবে কন্ট্রাক ইমেইল লিস্টে জমা হয়ে যাবে। পরবর্তীতে আপনারা সহজেই এই নতুন সাবস্ক্রাইবারদেরকে ইমেইল পাঠাতে পারবেন। 

এভাবে খুব সহজে ইমেইল মার্কেটিং এর মাধ্যমে অনেক অনেক মানুষের কাছে আপনার প্রোডাক্টের তথ্য এবং আপনার প্রোডাক্ট এর পরিচিতি আপনি জানাতে পারবেন বা পাঠাতে পারবেন। এতে করে আপনি অনেক বেশি প্রোডাক্ট সেল করতে পারবেন এবং আপনি অনেক বেশি লিড পাবেন। অনেক বেশি ফোন পাবেন এবং আপনার ব্যবসা অনেক ভালো হবে।