ঘটনাটি অনেকটা বলিউডের সিনেমা ‘লেডিস ভার্সেস রিকি বাহল’এর মতো। সিনেমায়, তিন প্রতারিত প্রেমিকা তাদের প্রেমিক রিকিকে শিক্ষা দিতে জোট বেঁধেছিলেন। এ ক্ষেত্রেও ঘটনাপ্রবাহ কিছুটা সে দিকেই গড়িয়েছিল। তবে বাস্তবের তিন প্রেমিকা তাদের প্রেমিককে উচিত শিক্ষা দেওয়ার দিকে যাননি। বরং প্রেমিককে পাশ কাটিয়ে নিজেরা পাড়ি দিয়েছেন এমন এক ছুটিতে যা তাদের আজীবন মনে থাকবে।

সিনেমা এবং বাস্তব দুই গল্পেই পরস্পরের পাশে দাঁড়িয়েছেন তিন মহিলা। যদিও বাস্তবের তিন প্রেমিকা বেকা কিং, অ্যাবি রবার্টস এবং মরগ্যান টাবোর সিনেমার নাটকীয়তাকেও ছাপিয়ে গিয়েছেন তাদের প্রেমিকের প্রতি অবহেলা দেখিয়ে। একসঙ্গে ছুটি কাটাতে বেড়িয়ে তারা বন্ধু হয়ে উঠেছেন পরষ্পরের। নিজেদের মুক্তি উদযাপন করেছেন।

Advertisement

তাদের ইনস্টাগ্রামের গল্প সে কথাই বলছে। বেকা, অ্যাবি এবং মরগ্যান নিজেদের বেড়ানোর ছবি পোস্ট করার জন্য আলাদা একটি ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট বানিয়েছিলেন। সেখানেই তাদের ছুটি কাটানোর বিভিন্ন মুহূর্তের ছবি, ভিডিয়ো ভাগ করে নিয়েছেন তারা।

অ্যাবি জানিয়েছেন, তাদের এই বেড়ানোর লক্ষ্য কোনো ভাবেই তাদের প্রেমিকের প্রতি কোনো রাগ বা ক্ষোভ প্রকাশ নয়। তার ব্যাখ্যা, আমাদের দেখে মনে হতে পারে, হয়তো আমরা আমাদের প্রেমিকের প্রতি রাগ বা বিদ্বেষ থেকে এটা করছি। কিন্তু সেটা ঠিক নয়। এটা পুরোটাই আমাদের নিজেদের স্বপ্নকে বাঁচানোর একটা সুযোগ। আর সেই সুযোগের সদ্ব্যবহার করতে পেরে আমরা আনন্দিত।

ঘটনার সূত্রপাত আরো কয়েক সপ্তাহ আগে। তার প্রেমিক যে আরো দু’জনের সঙ্গে একই সঙ্গে একই সময়ে সম্পর্ক রেখে চলেছেন, তা অ্যাবি জানতে পারেন একটি মোবাইল বার্তায়। তিন জনের একজন তাকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন, তিনিও কি ওই ব্যক্তিকে ডেট করছেন? পরে অবশ্য তারা জানতে পারেন শুধু তারা তিনজন নয়, তাদের প্রেমিক একইসঙ্গে অন্তত ছ’জন মহিলার সঙ্গে সম্পর্ক রাখছিলেন। এর পরই তিন প্রেমিকা ‘প্রেমিক’কে বিদায় জানানোর সিদ্ধান্ত নেন।

তবে একসঙ্গে ছুটি কাটানোর কথা মাথায় আসে যখন তারা জানতে পারেন শুধু এক প্রেমিক নয়, একই ধরনের বেড়ানোর শখও লালন করেন তিন জনেই। পুরনো একটি স্কুল বাস ভাড়া করে লম্বা ছুটিতে বেড়িয়ে পড়েন তিন জন। বেড়ানোর বিভিন্ন মুহূর্ত ভাগ করে নিয়ে তারা লিখেছেন, ‘গত তিন সপ্তাহে অনেক কিছু বদলেছে আমাদের জীবনে। আমাদের সামনে যে এই সুযোগ এসেছিল, তার জন্য ঈশ্বরকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। আপাতত প্রতি মুহূর্তে পরস্পরের প্রতি ভালবাসা অনুভব করছি।

নেটমাধ্যমে অ্যাবিদের এই বেড়ানোর ছবি এবং গল্প ভাইরাল হয়েছে। অ্যাবিদের প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়ে নেটাগরিকরা বলেছেন, তোমাদের কথা পড়লাম। দুর্দান্ত কাজ করেছো তোমরা। মেয়েদের পরস্পরকে সমর্থনের প্রসঙ্গ উঠলে সেখানে তোমাদের গল্প অনুপ্রেরণা জোগাবে।

Advertisement