করোনা সংক্রমণ রোধে দীর্ঘ বিরতির পর গত ২৪ মে থেকে যাত্রীবাহী ট্রেন চালু করে বাংলাদেশ রেলওয়ে। তবে প্রথম পর্যায় ২৮ জোড়া আন্ত নগর ও ৯ জোড়া কমিউটার ট্রেন চলাচল শুরু করলেও আজ বুধবার (৯ জুন) থেকে আরো ১০ জোড়া আন্ত নগর ও আরো ৯ জোড়া কমিউটার ট্রেন বহরে যুক্ত হয়েছে।

রেলপথ মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

Advertisement

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, লকডাউনের কারণে গত ৫ এপ্রিল সব যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ২৪ মে থেকে আসনের অর্ধেক যাত্রী নিয়ে ২৪ জোড়া আন্ত নগর এবং ৯ জোড়া মেইল ও লোকাল ট্রেন চলছে। বর্তমানে আন্ত নগর ট্রেনের সব টিকিট অনলাইন ও অ্যাপে বিক্রি হচ্ছে। মঙ্গলবার (৮ জুন) অর্ধেক টিকিট স্টেশনের কাউন্টার থেকে বিক্রি হচ্ছে।

যেসব আন্ত নগর ট্রেন আজ থেকে চলছে সেগুলো হলো  ঢাকা-ময়মনসিংহ-তারাকান্দার ‘অগ্নিবীণা এক্সপ্রেস’, ঢাকা-সিলেটের ‘জয়ন্তিকা/উপবন এক্সপ্রেস’,  চট্টগ্রাম-সিলেটের ‘পাহাড়িকা/উদয়ন এক্সপ্রেস’,  রাজশাহী-চিলাহাটির ‘বরেন্দ্র এক্সপ্রেস’, খুলনা-চিলাহাটির ‘সীমান্ত এক্সপ্রেস’, ঢাকা-কুড়িগ্রামের ‘কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস’, পঞ্চগড়-ঢাকার ‘পঞ্চগড় এক্সপ্রেস’ এবং পঞ্চগড়-রাজশাহীর ‘বাংলাবান্ধা এক্সপ্রেস’।

যে ১০ জোড়া মেইল ও কমিউটার চালু হচ্ছে ঢাকা/চট্টগ্রাম মেইল, সুরমা মেইল, তিতাস কমিউটার, দেওয়ানগঞ্জ কমিউটার, ময়মনসিংহ এক্সপ্রেস, মহুয়া কমিউটার, রাজবাড়ী এক্সপ্রেস, বিরল কমিউটার, বগুড়া কমিউটার এবং কলেজ ট্রেন।

রেলের বহরে ১০২ জোড়া আন্ত নগরসহ মোট ৩৬২ জোড়া যাত্রীবাহী ট্রেন রয়েছে। বিধিনিষেধের মধ্যে দুই ধাপে এর মধ্যে ৫২ জোড়া চালু হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে এসব ট্রেনে মোট আসনের অর্ধেক যাত্রী পরিবহন করা হবে বলে জানানো হয়েছে বিজ্ঞপ্তিতে।

এদিকে গতকাল মঙ্গলবারের ট্রেনের টিকিট অগ্রিম বিক্রির মধ্য দিয়ে কাউন্টারে টিকিট বিক্রির যাত্রা শুরু করেছে রেলওয়ে। এখন থেকে যাত্রী পরিবহনের মোট আসনের অর্ধেক নিয়মিত ও অগ্রিম টিকিট কাউন্টারে পাওয়া যাবে।

গতকাল ঢাকার কমলাপুর স্টেশনে আন্ত নগরের টিকিট কাউন্টারগুলোতে ভিড় তুলনামূলক কম ছিল। কারণ হিসেবে স্টেশন মাস্টার নৃপেন্দ্র সাহা বলেন, ‘এমনিতেই ট্রেনের সংখ্যা কম, তাই যাত্রী কম হবে। তার ওপর অর্ধেক আসনে যাত্রী পরিবহন করা হচ্ছে। এর অর্ধেক টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে অনলাইনে। তাই সব মিলিয়ে কাউন্টারে যাত্রীর চাপ কম।’

বাংলাদেশ রেলওয়ের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পরিচালন) সরদার শাহাদাত আলী জানান, ১ জুন কাউন্টারে টিকিট বিক্রির নির্দেশনা জারি করা হয়। নির্দেশনা অনুযায়ী, ৪ জুন থেকে কাউন্টারে গতকাল মঙ্গলবারের টিকিট অগ্রিম বিক্রি শুরু হয়েছে। করোনার ঝুঁকি এড়াতে সরকারি নির্দেশনা মেনে অর্ধেক আসনে ট্রেন চলাচল করছে। এসব ট্রেনের টিকিট একই সঙ্গে কাউন্টার ও অনলাইনে পাওয়া যাচ্ছে। 

Advertisement