এই পৃথিবীতে সব কিছুই অনেক সহজলভ্য হয়ে যাচ্ছে। অনলাইনের কল্যাণে অনলাইন থেকে এখন যেমন যেকোনো প্রোডাক্ট ঘরে বসেই কেনা যাচ্ছে। ঠিক তেমনি অনলাইনে এখন বাসের টিকিটও খুব সহজেই কাটা যাচ্ছে। এতে করে যাদের বাড়ি দূরে তারা খুব সহজেই অনলাইন থেকে বাসের টিকিট কেটে ফেলতে পারছে। দূরে কোথাও যাওয়ার জন্য অনলাইনে বাসের টিকিট যেভাবে কাটতে হয়-

অনলাইনে বাসের টিকিট কাটার উপায়

অনলাইনে বাসের টিকিট কাটার জন্য BDTICKETS  ওয়েবসাইটে প্রথমে প্রবেশ করতে হবে। এবার এখান থেকে ফর্ম অপশন থেকে আপনি যেখান থেকে টিকিট কাটছেন সেই জেলা সিলেক্ট করতে হবে। যেমন আপনি যদি রাজশাহী থেকে টিকিট কাটেন ঢাকার উদ্দেশ্যে তাহলে ফর্মে রাজশাহী সিলেক্ট করতে হবে। এখানে জেলা ছাড়া আপনি যদি থানা থেকেও টিকিট কাটতে চান। তাহলে এখানে আপনি থানারও অপশন পাবেন। আপনি যদি রাজশাহী থেকে ঢাকা যেতে চান, তাহলে journey date দিতে হবে। আপনি চেষ্টা করবেন সর্বোচ্চ দুই দিন আগে টিকিটটি কাটা তাহলে অবশ্যই ভালো সিট পাবেন। Journey date দেয়ার পরে সার্চ বাটনে ক্লিক করতে হবে।

Search বাটনে ক্লিক করার পর আপনারা এখানে বিভিন্ন গাড়ির লিস্ট দেখতে পাবেন। যেমন হানিফ এন্টারপ্রাইজ, দেশ ট্রাভেল ন্যাশনাল ট্রাভেল এরকম অনেক গাড়ি লিস্ট আপনারা দেখতে পাবেন এবং আপনারা এসি নন এসি সকল ধরনের অপশনই এখান থেকে দেখতে পাবেন। এখান থেকে আপনারা যে সময়ে যেতে চান সেই সময়ও দেখতে পাবেন। এছাড়া যে সময় আপনার গন্তব্যস্থলে গাড়িটি পৌঁছাবে সেই সময় দেহ দেখতে পাবেন। শুধু তাই না কতগুলো সিট Available আছে সেগুলো আপনার এখান থেকে দেখতে পাবেন। আপনি যদি মনে করেন পাঁচটার দিকে ন্যাশনাল ট্রাভেলস এ যাবেন সেক্ষেত্রে পাঁচটার গাড়ি সিলেক্ট করে View Seats অপশনে আপনাকে ক্লিক করতে হবে। এখান থেকে আপনারা বাম পাশে অনেকগুলো সিটের ছবি দেখতে পাবেন।

সেখানে সাদা যে সিট গুলো আছে সেই সিটগুলো আপনারা সিলেক্ট করতে পারবেন। সাদা সিটগুলো সিলেক্ট করে আপনার যদি একটি, দুটি বা তিনটি সিট লাগে সেক্ষেত্রে আপনারা সাদা সিটগুলোতে ক্লিক করতে হবে। এবং সাদা সিটগুলো তখন সবুজ দেখাবে। এবার আপনি যে জেলার যে জায়গা থেকে উঠতে চান। সেই জায়গা সিলেক্ট করে দিতে হবে। ধরেন আপনি রাজশাহী কাউন্টার থেকে উঠতে চান তাহলে আপনি রাজশাহী কাউন্টার সিলেক্ট করে দিবেন। এখানে কাজলা কাউন্টার বিনোদপুর কাউন্টার, কাটাখালি কাউন্টার এরকম অনেক কাউন্টার আছে। আপনি যদি রাজশাহী কাউন্টার থেকে উঠতে চান। তাহলে রাজশাহী কাউন্টার সিলেক্ট করে দিবেন। যদি বিনোদপুর কাউন্টার থেকে উঠতে চান। তাহলে বিনোদপুর কাউন্টার সিলেক্ট করে দিবেন।

এরপর আপনি যে জায়গাতে নামতে চান ঢাকার চন্দ্রা বা নবীনগর বা সাভার বাগাবতলী বা টেকনিক্যাল কাউন্টার সেটা সিলেক্ট করে দিবেন। সিলেক্ট করার পরে মোবাইল নাম্বার অপশন থেকে আপনি আপনার মোবাইল নাম্বারটি দিয়ে দিবেন। মোবাইল নাম্বার দেয়া হয়ে গেলে সাবমিট বাটনে ক্লিক করতে হবে। সাবমিট বাটনে ক্লিক করলে একটি কোড আসবে সেই কোডটি এখানে দিয়ে দিতে হবে। এবার সাবমিট বাটনে ক্লিক করতে হবে। সাবমিট বাটনে ক্লিক করার পর আপনার ইমেইল এড্রেস এবং আপনার নাম এবং আপনার জেন্ডার চাইবে। 

এগুলো সব দেয়া হয়ে গেলে প্রসিড বাটনে ক্লিক করতে হবে। এই বাটন নামে ক্লিক করলে আপনার একটি পেমেন্টের অপশন আসবে। এখানে আপনি সরাসরি টাকা পে করে দিতে পারবেন। অথবা বুক করতে পারবেন। আপনার কাছে যদি কোন প্রমোশনাল কোড থাকে। তাহলে আপনি অফার বাটনে ক্লিক করে প্রমোশনাল করতে সংগ্রহ করে নিবেন এবং সেই প্রমোশনাল কোডটি এই প্রফেশনাল কোডের জায়গায় দিলে আপনি কিছুটা ডিসকাউন্ট পাবেন। আপনি এরপর বুক নাউ বাটনে ক্লিক করবেন। এছাড়া এসএমএসের মাধ্যমে আপনাকে বুকিং নাম্বার টা দেয়া হবে।

এবার পে নাও বাটনে ক্লিক করলে ভিসা বা মাস্টার কার্ড বিকাশ উপায় নগদ রকেট এই ধরনের পেমেন্ট গেটের থেকে পেমেন্ট করতে পারবেন। আপনি যদি বিকাশ থেকে পেমেন্ট করতে চান। তাহলে সেক্ষেত্রে বিকাশ সিলেক্ট করতে হবে। এরপর আপনার বিকাশ নাম্বারটি দিলে স্বয়ংক্রিয় ভাবে আপনার বিকাশ নাম্বার থেকে টাকা কেটে নেওয়া হবে। এরপর আপনার মোবাইলের এসএমএস এ একটি মেসেজ আসবে এবং আপনার টিকিটটি তৈরি হয়ে যাবে। এই মেসেজটি দেখিয়ে আপনি কাউন্টার থেকে খুব সহজে আপনার টিকিটটি সংগ্রহ করে নিতে পারবেন। এরপর আপনি আপনার গন্তব্য স্থলের দিকে রওনা দিতে পারবেন খুব সহজে।

এভাবে আপনি খুব সহজে অনলাইনে বাসের টিকিট কাটতে পারবেন। অনলাইনে বাসের টিকিট কাটার জন্য Bd tickets ছাড়াও shohoz.com থেকেও আপনি সহজে টিকেট কাটতে পারবেন। সহজ ডট কমে বাস রিজার্ভেশন সহ আরো অনেক ধরনের অপশন রয়েছে। এছাড়া আপনি এই ধরনের ওয়েবসাইট থেকে বাস লঞ্চ এমনকি প্লেনের টিকিটও কাটতে পারবেন।